logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬

পাংশায় ৩৫ মণ ভেজাল গুড় ধ্বংস

রাজবাড়ী প্রতিনিধি, আরটিভি অনলাইন
|  ২৪ জানুয়ারি ২০২০, ১৫:১৫ | আপডেট : ২৪ জানুয়ারি ২০২০, ১৫:৩৯
গুড় ভেজাল রাজবাড়ী
জব্দ করার পর ধ্বংস করা হচ্ছে ভেজাল গুড়
রাজবাড়ীর পাংশা পৌর শহরের সরদার বাসস্ট্যান্ড এলাকায় মাধব চন্দ্র পালের ভেজাল গুড় কারখানায়  অভিযান চালিয়ে ৩৫ মণ গুড় জব্দ করে ধ্বংস করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। সেইসঙ্গে রং, কেমিক্যাল ও ময়দা দিয়ে গুড় তৈরির অপরাধে মাধব চন্দ্র পালকে এক মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

মাধব চন্দ্র পাল পাংশা পৌরসভা এলাকার মৈশালা পালপাড়া গ্রামের জীবন চন্দ্র পালের ছেলে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে এ অভিযান চালায় পাংশা উপজেলা প্রশাসন ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

রাজবাড়ীর পাংশা পৌর শহরের সরদার বাসস্ট্যান্ড এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে ভেজাল গুড়ের কারখানায় রং, কেমিক্যাল, ময়দা দিয়ে গুড় তৈরি করে দেশের বিভিন্ন এলাকায় বাজারজাত করে আসছিল একটি অসাধু চক্র।  এর আগেও গেল বছর রমজানের সময় ওই কারখানায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর রাজবাড়ী অভিযান চালিয়ে ১২০ মণ আখের গুড় ও ভেজাল গুড় তৈরির রং,বার্নিশ, ময়দা ও অন্যান্য ক্যামিকেল ধ্বংস করেছিল। কিছুদিন বন্ধ থাকার পর পুনরায় আবার কারখানাটি চালু করেছিলেন তারা।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর রাজবাড়ীর সহকারী পরিচালক মো. শরিফুল ইসলাম আরটিভি অনলাইনকে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভেজাল গুড়ের কারখানার সন্ধান পেয়ে পাংশা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, সেনেটারি ইন্সপেক্টর সূর্য কুমার প্রামাণিক, পাংশা উপজেলা সেনেটারি ইন্সপেক্টর মো. তৈয়বুর রহমান, আনছার বাহিনীর সদস্যদের নিয়ে অভিযান চালানো হয়।

পাংশা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর রাজবাড়ীর সহকারী পরিচালক মো. শরিফুল ইসলাম যৌথ অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ ভেজাল গুড় নষ্ট করেন একইসঙ্গে খাদ্য পণ্যে নিষিদ্ধ দ্রব্যের মিশ্রণের অপরাধে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর অধীনে মাধব চন্দ্র পাল নামের একজনকে এক মাসের কারাদণ্ড দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম। সেইসঙ্গে সেখানে প্রস্তুত করা ৩৫ মণ ভেজাল গুড় জব্দ করে ধ্বংস করা হয়েছে।

জেবি 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়