logo
  • ঢাকা রোববার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০ ফাল্গুন ১৪২৬

কুড়িগ্রামে শীত আর শীত

কুড়িগ্রাম (উত্তর) প্রতিনিধি, আরটিভি অনলাইন
|  ২২ জানুয়ারি ২০২০, ১১:৩০ | আপডেট : ২২ জানুয়ারি ২০২০, ১১:৪৯
শীত কুড়িগ্রাম গরিব
ছবি: সংগৃহীত
কুড়িগ্রামের রাজারহাটে বুধবার সকাল নয়টায় তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

কুড়িগ্রামের রাজারহাট কৃষি ও আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুবল চন্দ্র আরটিভি অনলাইনকে জানান, আজ কুড়িগ্রাম এবং পার্শ্ববর্তী জেলা লালমনিরহাটে ৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা বিরাজ করছে। চলমান শৈত্যপ্রবাহ আগামী ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত বিস্তৃত হতে পারে বলে জানায় আবহাওয়া দপ্তর। 

এদিকে ঘন কুয়াশা আর হিমেল হাওয়ায় শীতের তীব্রতা বেড়েছে কুড়িগ্রামে।

আবহাওয়া অফিস বলছে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহ প্রবাহিত হচ্ছে জেলার ওপর দিয়ে।

ঘন কুয়াশা আর উত্তরের হিমেল হাওয়ায় কুড়িগ্রামের জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। ঠাণ্ডায় চরম বিপাকে পড়েছে শ্রমজীবী ও ছিন্নমূল মানুষসহ পশুপাখি। ঘন কুয়াশা ও কনকনে ঠান্ডায় বিশেষ কাজ ছাড়া বাইরে বের হচ্ছে না অনেকেই। শীতের কারণে কুড়িগ্রামের নদ-নদী তীরবর্তী, চরাঞ্চলসহ প্রান্তিক মানুষ দুর্ভোগে পড়েছে। এদিকে দুই দিন থেকে ঘন কুয়াশা রেশ থাকছে দুপুর পর্যন্ত। শেষ রাত থেকে ঝড়তে থাকে বৃষ্টির মতো শিশির। যা শীতের তীব্রতায় নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে। দুর্ভোগ বেড়েছে সকাল সকাল কাজে যোগ দেয়া শ্রমজীবী মানুষের। শীতে কষ্ট বেড়েছে শিশু ও বয়স্কজনদের। এছাড়া ছিন্নমূল, অসহায় মানুষেরাও শীতে দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন।

তীব্র শীতের কারণে পিছিয়ে গেছে চলতি ইরি-বোরো মৌসুমের চাষাবাদ।

কৃষকেরা বলছেন, দীর্ঘদিন ঘন কুয়াশা এবং শৈত্যপ্রবাহের কারণে বীজতলার চারার বৃদ্ধি ঠিকমতো না হওয়া অপেক্ষা করতে হচ্ছে বোরো আবাদ শুরু করতে। শীত কমলেই চাষাবাদ শুরু করা হবে বলে জানান কৃষকরা।

জেলা ত্রাণ শাখা সূত্রে জানা যায়, এ পর্যন্ত নয় উপজেলার শীতার্তদের মধ্যে ৬১ হাজার ৫১৪টি কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। 

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়