logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২০, ৫ মাঘ ১৪২৭

তিন দিন ধরে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা পঞ্চগড়ে

পঞ্চগড় প্রতিনিধি, আরটিভি অনলাইন
|  ১৫ জানুয়ারি ২০২০, ১১:৪৪
যানবানহ পঞ্চগড় কুয়াশা
তীব্র কুয়াশার কারণে পঞ্চগড়ে হেডলাইট জ্বালিয়ে যানবাহন চলাচল করছে
পঞ্চগড়ে টানা তিন দিন ধরে সারা দেশের মধ্যে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। দেশের সর্ব উত্তরের প্রান্তিক জেলা পঞ্চগড় হিমালয়ের পাদদেশে অবস্থিত হওয়ায় এ জেলায় শীতের তীব্রতা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। কনকনে হাড় কাঁপানো শীতের সঙ্গে ঘন কুয়াশা ও শৈত্যপ্রবাহের দাপটে শীতে জুবুথুবু পুরো পঞ্চগড়।

তাছাড়া মাঝে মধ্যে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি ও হিমালয়ের হিম বাতাসের কারণে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে জেলার পাঁচ উপজেলার সাধারণ ও খেটে খাওয়া মানুষেরা। ফলে সময়মতো কাজে যেতে না পারায় কর্মহীন হয়ে পড়েছে অনেকেই।

গেল দুই দিন পর আজ বুধবার সকাল ছয়টায় পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া আবহাওয়া অফিসে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় সাত দশমিক ছয় ডিগ্রি সেলসিয়াস। সকাল নয়টায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় সাত দশমিক পাঁচ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা সারা দেশের মধ্যে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

এদিকে সরেজমিনে দেখা গেছে, কুয়াশা চাদরে ঢেকে থাকা পঞ্চগড়ের সাধারণ মানুষ  শীতের কারণে প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বের হচ্ছেন না। আর যারা জীবিকার তাগিদে কনকনে শীতকে উপেক্ষা করে কাজের সন্ধানে বাড়ির বাইরে বের হচ্ছেন তারাও কাজ না পেয়ে বাড়ির পথ ধরছেন।

তাছাড়া জেলার সড়ক ও মহাসড়কগুলোতে হেডলাইট জ্বালিয়ে যানবাহন চলাচল করতে দেখা গেছে।

এদিকে গেল তিন দিন ধরে শীতের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালসহ জেলার চারটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শীতজনিত রোগীর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। বেশি আক্রান্ত হতে দেখা গেছে শিশু ও বয়স্কদের। তাছাড়া পঞ্চগড়ে কোনও শিশু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক না থাকায় চিকিৎসার জন্য ঠাকুরগাঁওয়ে যাচ্ছেন অনেকেই।

এ জেলায় শীতার্ত মানুষের সংখ্যা প্রায় দুই লাখ থাকলেও তাদের জন্য বরাদ্দ মাত্র ৪৫ হাজার শীতবস্ত্র। যা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। তবে শীতার্তদের জন্য শীতবস্ত্রের চাহিদা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

শীতবস্ত্রের অভাবে জেলার শীতার্ত ও ছিন্নমূল মানুষেরা কনকনে শীতের তীব্রতা থেকে রক্ষার জন্য অনেকেই বাড়ির আঙ্গিনা ও ফুটপাতসহ চায়ের দোকানের চুলায় বসে আগুন পোহাচ্ছে ।

আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা যায়, গেল তিন দিন ধরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে। গতকাল মঙ্গলবার তাপমাত্রা  রেকর্ড করা হয়েছিল ৭.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গত কালকের চেয়ে তাপমাত্রা কিছুটা বৃদ্ধি পেলেও আজ কেউ সারা দেশের মধ্যে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। আবহাওয়া অফিস সূত্রে আরও জানা যায়, হিমালয় হিমেল হাওয়ার কারণে এ জেলায় শীতের তীব্রতা বেশি থাকে এবং শীত মৌসুমে শীতের তাপমাত্রা উঠানামা করে।

তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রহিদুল ইসলাম আরটিভি অনলাইনকে বলেন, আজ বুধবার সকাল নয়টায় পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় সারা দেশের মধ্যে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৭.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা সারা দেশের মধ্যে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। তবে তাপমাত্রা আরও নিচে নামার সম্ভাবনা রয়েছে।

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়