logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

পঞ্চগড় প্রতিনিধি, আরটিভি অনলাইন

  ১৩ জানুয়ারি ২০২০, ১১:০৩
আপডেট : ১৩ জানুয়ারি ২০২০, ১২:৩৮

দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তেঁতুলিয়ায় ৭.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস

শীত তাপমাত্রা রিকশা
তীব্র শীতের মধ্যেই রিকশা নিয়ে বের হতে হচ্ছে তেঁতুলিয়ার খেটে খা্ওয়া মানুষজনকে
আজ সোমবার সপ্তম দফায় আবারও দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে পঞ্চগড়ের তেতুঁলিয়ায়।

এছাড়াও আজ ভোর হতে ঘন কুয়াশায় ঢেকে গেছে পুরো পঞ্চগড় জেলা। নিম্ন আয়ের মানুষের জীবনে স্থবিরতা বিরাজ করছে। রাস্তায় বের হওয়া মানুষদের সঙ্গে সোমবার সকালে কথা বলে জানা যায়, তীব্র শীত আর ঘন বৃষ্টির মতো কুয়াশায় গা ভিজে যাচ্ছে।  গেল চার দিন ধরে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ চলছে পঞ্চগড় জেলায়। ছয় থেকে ১০ ডিগ্রি তাপমাত্রা বিরাজ করছে।

তেতুঁলিয়া আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রহিদুল ইসলাম আরটিভি অনলাইনকে জানান, সোমবার তাপমাত্রা সকাল ছয়টায় ৭.৭ এবং সকাল নয়টায় ৭.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।

গেল পাঁচ দিনে জেলায় পঞ্চম দফায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে তেতুঁলিয়ায়। আকাশ মেঘাচ্ছন্ন রয়েছে। সেইসঙ্গে চলছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। শীতের মধ্যেও কাজে যোগ দিয়েছে ছিন্নমূল খেটে খাওয়া মানুষেরা। কুয়াশার কারণে যানবাহন চলতে সমস্যা হচ্ছে। সকাল হতে গাড়ির হেডলাইট জ্বালিয়ে যানবাহন চলছে।

উত্তরের হিমেল হাওয়ায় ঠাণ্ডার তীব্রতা আরও বাড়ছে। খুড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছে নিম্নআয়ের মানুষ।

পরিবহন শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, শীত  ও কুয়াশার কারণে যানবাহন চালানো কষ্টকর হয়ে পড়েছে। আজ সোমবার হেডলাইট জ্বালিয়েও সামনে কিছু দেখা যাচ্ছে না।

হাসপাতালের শীতজনিত রোগীর সংখ্যা অপরিবর্তিত রয়েছে।  তবে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে শিশু বিশেষজ্ঞ না থাকায় বেশির ভাগ সময় শিশু রোগীদের নিয়ে ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালে যেতে হচ্ছে।

এদিকে জেলা প্রশাসনের কম্বল বিতরণ শেষ হলেও বেসরকারিভাবে সদর তেতুঁলিয়া এবং আটোয়ারি উপজেলায় বিভিন্ন  স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান শীতার্তদের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ করছেন।

জেবি

RTVPLUS