logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

শীতে কাঁপছে পঞ্চগড়

কুয়াশা জনপদ পঞ্চগড়
কুয়াশাচ্ছন্ন পঞ্চগড়ের জনপদ
পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় এবার শীত মৌসুমে দীর্ঘদিন ধরেই দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রার বিরাজ করছে। বেশ কয়েকদিন ধরে শৈত্যপ্রবাহের কারণে দিনভর মেঘলা ও কুয়াশাচ্ছন্ন আকাশ থাকায় দেখা যায়নি সূর্যের মুখ। এর মধ্যেই আবার গত তিনদিন ধরে কুয়াশার সঙ্গে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি পড়ছে।

তবে আজ মঙ্গলবার থেকে আবারও তীব্র শৈত্যপ্রবাহে কাঁপছে তেঁতুলিয়া। এদিন সকাল ছয়টায় তেঁতুলিয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ছয় ডিগ্রি সেলসিয়াস।

তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রহিদুল ইসলাম, তেঁতুলিয়া হিমালয়ের খুব কাছাকাছি হওয়ায় উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে হিমেল বাতাস সরাসরি প্রবাহের কারণে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।দিনের বেলা সূর্যের সঙ্গে রোদের দেখা মিললেও উত্তরের হিম বায়ুতে সেই রোদের উষ্ণতা থাকছে না।

তিনি আরও বলেন, দিনে রোদের দেখা মিললেও রাতে তাপমাত্রা কমে যাচ্ছে। নতুন বছরে জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহের মঙ্গলবার সকাল ছয়টায় ৬ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।

আগামী দু-এক দিনে তেঁতুলিয়ার তাপমাত্রা ৩-৪ ডিগ্রিতে নামার আশঙ্কা রয়েছে বলেও জানান তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

গতকাল সোমবার সন্ধ্যা নামতেই অনুভূত হতে থাকে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ। কুয়াশা তেমন না থাকলেও বইতে থাকে শীতল হাওয়া। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন নিম্ন আয়ের খেটে খাওয়া মানুষ। উত্তরের হিমেল বাতাসে কাবু হয়ে পড়েছে দেশের সর্ব উত্তরের এই জনপদের বাসিন্দারা। গ্রামাঞ্চলের নিম্ন আয়ের মানুষগুলোকে বাড়ির উঠোনে, রান্নাঘরের চুলার আগুনে শীত নিবারণ করতেও দেখা যায়।

এর আগে গত বছর ২০১৯ সালে জানুয়ারিতে তেঁতুলিয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৪ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ২০১৮ সালের  আট জানুয়ারি দেশের ৫০ বছরের ইতিহাসে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছিল ২ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

জেবি

RTVPLUS