logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬

শুনে শুনে কোরআন মুখস্থ করলেন দৃষ্টিহীন সাজ্জাতুল

শরীয়তপুর প্রতিনিধি
|  ১৩ আগস্ট ২০১৯, ১৮:০৩ | আপডেট : ১৩ আগস্ট ২০১৯, ১৮:১০
দৃষ্টিহীন, কোরআন, মুখস্থ
দৃষ্টিহীন সাজ্জাতুল ইসলাম (১৮) শুনে শুনেই কোরআন মুখস্থ করেছেন। শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার আলাওয়ালপুর ইউনিয়নের চার নম্বর ওয়ার্ডের মৃত জবেদ আলী মাল ও সায়েদা বেগমের ছোট ছেলে সাজ্জাতুল। সাজ্জাতুলের আরও তিনটি ভাই ও চারটি বোন রয়েছে।

bestelectronics
জন্মের পাঁচ বছর পরেই সাজ্জাতুল চোখের দৃষ্টি হারান। দুই চোখে দেখতে না পেলেও মাদরাসার মাওলানার কাছ থেকে শুনে শুনে মুখস্থ করেছেন পবিত্র কোরআন শরীফ। 

সাজ্জাতুল ইসলাম জানান, তার বয়স যখন পাঁচ বছর তখন শরীরে হাম ওঠে। হামের কারণে তার দুই চোখের দৃষ্টি চলে যায়। এরপরেও তিনি থেমে থাকেননি। আট বছর বয়সে চাঁদপুর নেছারিয়া আরাবিয়া হাফিজিয়া মাদরাসায় হেফজ খানায় ভর্তি হন তিনি। মাদরাসার শিক্ষক হাফেজ মাওলানা আব্দুর রহমানের মুখে শুনে শুনে দুই বছরেই কোরআন মুখস্থ করেছেন তিনি। পরে চট্টগ্রাম জামিয়া আহমদিয়া কামেল মাদরাসায় মিজান কিতাব শেষ করেন।   

---------------------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : মাত্র ৪০ দিনে সমগ্র কুরআন মুখস্থ করলো সাদিক নূর
---------------------------------------------------------------------

তিনি আরও জানান, তিনি ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে শরীয়তপুর জেলার আংগারিয়া সমন্বিত অন্ধ শিক্ষা কার্যক্রমের আওতায় আংগারিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণিতে ভর্তি হন। তিনি সরকারি খরচে সেখানে পড়ালেখা করছেন।

তিনি আরও জানান, অন্যের ঘাড়ে বোঝা হয়ে না থেকে স্বাভাবিক জীবন-যাপনের জন্য পড়ালেখা শুরু করেছেন।বড় হয়ে প্রতিবন্ধীদের শিক্ষক হতে চান তিনি। দাঁড়াতে চান তাদের পাশে।

আংগারিয়া সমন্বিত অন্ধ শিক্ষা কার্যক্রমের আওতায় সমাজসেবা অধিদপ্তরের রিসোর্স টিচার মো. এনামুল হক বলেন, আমরা প্রথম শ্রেণি থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের লেখাপড়া করিয়ে থাকি। সাজ্জাতুল এ বছর অষ্টম শ্রেণিতে ভর্তি হয়েছে। তবে ছাত্র হিসেবে খুবই ভালো সাজ্জাতুল। ইচ্ছা ও মনোবল থাকলে প্রতিবন্ধী হয়েও অনেক কিছু করা যায় সাজ্জাতুল তার বড় প্রমাণ।

জেবি

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়