logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬

চার ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মাদরাসার প্রধান শিক্ষক আটক

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি
|  ২৭ জুলাই ২০১৯, ২০:০১ | আপডেট : ২৭ জুলাই ২০১৯, ২০:৫২
ধর্ষণ, আটক, ছাত্রী
চার ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে আটক মুফতি মোস্তাফিজুর রহমান
নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার দারুল হুদা মহিলা মাদরাসার চার ছাত্রীকে ধর্ষণ ও যৌন হয়রানির অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান শিক্ষক মুফতি মোস্তাফিজুর রহমানকে আটক করেছে র‌্যাব।

bestelectronics
শনিবার বিকেলে ফতুল্লার ভূঁইগড় এলাকায় অবস্থিত ওই মাদরাসাটিতে অভিযান চালায় র‌্যাব। এ সময় ওই প্রধান শিক্ষকের কাছ থেকে ধর্ষণ ও যৌন হয়রানি সংক্রান্ত বেশ কিছু আলামত জব্দ করা হয়।

আটককৃত প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমানের গ্রামের বাড়ি নেত্রকোনা জেলায়। গেল ছয় বছর যাবত তিনি মাদরাসাটি পরিচালনা করছেন এবং পরিবার নিয়ে সেখানেই বসবাস করছেন।

র‌্যাব জানায়, ওই মাদরাসায় ৯৫ জন ছাত্রী লেখাপড়া করছে। তাদের মধ্যে আবাসিকভাবে লেখাপড়া করছে ৩০ থেকে ৩৫ জন ছাত্রী। সম্প্রতি বেশ কয়েকজন ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও যৌন হয়রানির অভিযোগ আসে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে র‌্যাব গোয়েন্দা নজরদারি শুরু করে। প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতা পেয়ে শনিবার সকালে ওই মাদরাসায় অভিযান চালানো হয়। এ সময় প্রধান শিক্ষকের মোবাইল ফোনে দশ থেকে পনের বছর বয়সী চারজন ছাত্রীকে যৌন হয়রানির ভিডিওচিত্র ও ছবি পাওয়া যায়।

---------------------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা
---------------------------------------------------------------------

পরে ওই শিক্ষককে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি চারজন শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানি ও ধর্ষণের অভিযোগ স্বীকার করেন। এ ঘটনার খবর পেয়ে শত শত এলাকাবাসী ঘটনাস্থলে জড়ো হয়ে অভিযুক্ত শিক্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

র‌্যাব-১১ এর কোম্পানি কমান্ডার মেজর তালুকদার নাজমুস সাকিব আরটিভি অনলাইনকে জানান, কয়েকজন অভিভাবকের কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে মুফতি মোস্তাফিজুর রহমানকে আটক করা হয়েছে। চারজন ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। র‌্যাব তা নিশ্চিত হয়েছে। আটককৃত মাদরাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা করা হবে।

এর আগে গেল চার জুলাই ফতুল্লা থানার মাহমুদপুর এলাকায় বাইতুল হুদা ক্যাডেট মাদরাসার ১২ জন শিশু ছাত্রীকে যৌন হয়রানি ও ধর্ষণের অভিযোগে প্রধান শিক্ষক আল আমিনকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।

এছাড়া ২৭ জুন সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি এলাকার অক্সফোর্ড হাইস্কুলের ২০ ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষক আরিফুল ইসলামকেও গ্রেপ্তার করা হয়।

জেবি/পি

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়