logo
  • ঢাকা বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গাসহ নিহত ২, সাড়ে ৬ লাখ ইয়াবা উদ্ধার

টেকনাফ প্রতিনিধি
|  ০১ জুন ২০১৯, ১১:৫৬
কক্সবাজারের টেকনাফে বিজিবির সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে এক রোহিঙ্গাসহ দুজন নিহত হয়েছেন। সেইসঙ্গে বিজিবির পৃথক অভিযানে উদ্ধার করা হয়েছে ৬ লাখ ৪০ হাজার পিস ইয়াবা।

bestelectronics
শনিবার (১ জুন) ভোররাতে আড়াই ঘণ্টার ব্যবধানে নাফ নদী সংলগ্ন কে কে খাল ও দমদমিয়ার নাফ নদীতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতেরা হলেন- মিয়ানমারের মংডু নাফপুরা এলাকার সুলতান আহম্মদের ছেলে মো. আব্দুল গফুর (৪০) ও টেকনাফ কেরুনতলী এলাকার মৃত শরিফের ছেলে মো. সাদেক (২৩)। 

এ ঘটনায় বিজিবির টহল দলের সিপাহী মো. আল ইমরান ও আব্দুল আউয়াল আহত হন।

টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সাল হাসান খান পিএসসি জানান, ভোররাত তিনটার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নাফ নদী পার হয়ে কে কে খাল এলাকা দিয়ে একটি বড় চালান মিয়ানমার হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারে। ওই সূত্রে ধরে বিজিবির একটি টহল দল আগে থেকে ওত পেতে থাকে। এসময় নৌকাটি খালের মুখে আসলেই বিজিবি বাঁধা দিলে পাচারকারীরা বিজিবির উপর গুলি ছুড়তে থাকে। বিজিবিও পাল্টা গুলি চালায়। ৪ থেকে ৫ মিনিট উভয় পক্ষে গুলি বিনিময় হলে পাচারকারীরা পিছু হটে। পরে ঘটনাস্থল তল্লাশি করলে কাদার মধ্য থেকে দুই ব্যক্তির গুলিবিদ্ধ মরদেহ পাওয়া যায়। তাদের শরীরে ৫০ হাজার করে ইয়াবা ট্যাবলেট পাওয়া যায়।

সিও আরও জানান, স্থানীয়দের থেকে নিহতদের পরিচয় মিলে। পাশাপাশি এ ব্যাপারে আইনি কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

অপরদিকে রাত ১২টার দিকে সিও’র নেতৃত্বে দমদমিয়া নাফ নদীতে অভিযান চালিয়ে ৫ লাখ ৪০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। তবে পাচারকারীরা পালিয়ে যাওয়ায় কাউকে আটক করা যায়নি।

সিও জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নাফ নদীতে তার নেতৃত্বে অবস্থান নেয়। এসময় একদল পাচারকারী মিয়ানমার হয়ে বাংলাদেশের সীমানায় প্রবেশ করে। বিজিবির উপস্থিতি টের পেয়ে নৌকাটি ডুবিয়ে পাচারকারীরা পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে নৌকাটি তল্লাশি করে ৫ লাখ ৪০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার হওয়া ইয়াবা সদর ব্যাটালিয়নে জমা রাখা হয়েছে। পরবর্তী ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে এসব ধ্বংস করা হবে।

এসএস

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়