• ঢাকা সোমবার, ২৪ জুন ২০১৯, ১০ আষাঢ় ১৪২৬

পরিত্যক্ত অবস্থায় নষ্ট হচ্ছে কোটি টাকার সেচ পাম্প

চাঁদপুর প্রতিনিধি
|  ১৮ মে ২০১৯, ২০:০২ | আপডেট : ১৮ মে ২০১৯, ২০:০৭
কয়েক কোটি টাকার ভাসমান সেচ পাম্প পরিত্যক্ত অবস্থায় নষ্ট হচ্ছে, ছবি: আরটিভি অনলাইন
চাঁদপুর শহরের মুখার্জীঘাট এলাকার ডাকাতিয়া নদীর তীরে কর্তৃপক্ষের অবহেলার কারণে কয়েক কোটি টাকার ভাসমান সেচ পাম্প পরিত্যক্ত অবস্থায় নষ্ট হচ্ছে। এসব পাম্পের মূল্যবান যন্ত্রাংশ চুরি হয়ে যাচ্ছে এবং পাম্পগুলো ক্রমান্বয়ে মাটির নিচে চাপা পড়ে যাচ্ছে।

whirpool
পাম্পগুলো এখনই নিলামে বিক্রি করে রাজস্ব খাতে টাকা জমা না দিলে আগামীতে এসব পাম্পের অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যাবে না বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিএডিসির চাঁদপুর অঞ্চল সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন চাঁদপুর অঞ্চল সারা দেশের স্টোর। দেশে যত পাম্প নষ্ট বা অকেজো হয় সেগুলো এখানে ডাকাতিয়া নদীর তীরে রাখা হয়। বর্তমানে ডাকাতিয়া নদীর তীরে অকেজো আটটি ভাসমান সেচ পাম্প পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে আছে।

এর মধ্যে ২৫ কিউসেক ডিজেল চালিত তিনটি, সাড়ে ১২ কিউসেক তিনটি ও ১০ কিউসেকের দুটি পাম্প সম্পূর্ণ ব্যবহার অযোগ্য। এসব সেচ পাম্পের মূল্য কয়েক কোটি টাকা। কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার কারণে এসব পাম্পের মূল্যবান যন্ত্রাংশ চুরি হয়ে যাচ্ছে এবং নদীর জোয়ার-ভাটায় পাম্পগুলো ক্রমান্বয়ে মাটির নিচে চলে যাচ্ছে।

বিএডিসির সিবিএ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এনায়েত উল্লাহ ঢালী আরটিভি অনলাইনকে জানান, অকেজো এসব পাম্প নিলামে বিক্রি করে সরকারের রাজস্ব খাতে অর্থ রাখলে দেশ উপকৃত হবে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সরেজমিনে এসে এগুলো দেখে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন। তা না হলে লোহার এসব জিনিস মাটি খেয়ে ফেলবে। ভবিষ্যতে এগুলো লোহার কাজেও ব্যবহৃত হবে না।

বিএডিসির চাঁদপুর অঞ্চলের সহকারী প্রকৌশলী মো. এরশাদ উল্যাহ জানান, বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। সিদ্ধান্ত এলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ডাকাতিয়ার তীরে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে থাকা ভাসমান সেচ পাম্পগুলো দ্রুত নিলামে বিক্রির ব্যবস্থা করে টাকা রাজস্ব খাতে জমা করবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

জেবি/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়