Mir cement
logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮
discover

প্রধান শিক্ষক দম্পতিকে চাদাঁবাজির মামলা দিয়ে বাড়ি দখলের চেষ্টা

প্রধান শিক্ষক দম্পতিকে চাদাঁবাজির মামলা দিয়ে বাড়ি দখলের চেষ্টা
সংবাদ সম্মেলন

চাদাঁবাজি, হুমকি, জবর দখলসহ ১৫ থেকে ২০ ধরনের ভিন্ন ভিন্ন মামলা ও সরকারি দপ্তরে অভিযোগ দিয়ে বরগুনার তালতলাতে কর্মরত এক প্রধান শিক্ষক দম্পতিকে বসতবাড়ি থেকে উচ্ছেদের অপচেষ্টার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

গতকাল শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) সকালে বরগুনা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন তালতলীর পাজরাভাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ‍্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ মাকসুদুল ইসলাম ও তার স্ত্রী তালতলীর নয়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ‍্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইসরাত জাহান।

লিখিত বক্তব্যে তারা জানিয়েছেন, আমাদের পূর্বপুরুষ তিন দাদা ৪০ বছর পূর্বে বসতি স্থাপন করে তারা তিনজন আলাদা সীমানা নির্ধারণ করে ভোগ করা শুরু করেন। আমার পিতাও সেভাবে ভোগদখল করে গেছেন। চাকরির সুবাদে আমাদের দুজনকেই ২০ বছর অন‍্যত্র বসবাস করেছি। ২০১০ সালে আমার পিতার মৃত্যুর পরে সংগত কারণেই আমার স্ত্রী আমাদের দানকরা জমির উপর স্থপিত সরকারি প্রাথমিক বিদ‍্যালয়ে আমার স্ত্রী বদলি হয়ে আসে। এরপর আমার বাবার পুরনো ঘর ভেঙর ২০১৭ সালে আমরা ভবন তৈরি শুরু করি।

এরপর থেকেই গোলাম কবির ও তার ভাই বাবুল আক্তার আমাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র শুরু করে। প্রথমে আমাদের পুকুর দখল করে। আমার বিধবা বোনের ক্রয়কৃত জমি দখল করে। আমরা থানায় জিডি করার পরে ২০১৭ সালে আমাদের বিরুদ্ধে উল্টো একের পর এক আলাদাভাবে মিথ্যা মামলা ও অভিযোগ দিতে থাকে। ২০২০ সালে আমাদের নামে আমতলী জুডিসিয়াল কোর্টে ফৌজদারী মামলা করেন। এরপর তালতলী থানায় ভিন্ন অভিযোগ দিয়ে মামলা করে।

২০২০ সালের মার্চ মাসে আমতলী আদালতে আলাদা মামলা করে ২০২২ সালের ২ জানুয়ারি বরগুনার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করার তিনদিন পরে ৫ জানুয়ারি ভিন্ন অভিযোগ সাজিয়ে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে চাদাঁবাজি মামলা করে। তারা আমাদেরকে বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করে দখল করার চেষ্টা করছে।

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ প্রসঙ্গে শিক্ষক দম্পতির বিরুদ্ধে মামলার বাদী গোলাম কবির বাচ্ছু বলেন, তাদের সাথে সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ আছে। তারাও আমাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে আমরাও করেছি।

এমআই

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS