Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৭ জানুয়ারি ২০২২, ৩ মাঘ ১৪২৮

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ২১:৪১
আপডেট : ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ২১:৪৪
discover

গ্রেপ্তারের ভয়ে পুরুষরা গ্রাম ছাড়া

গ্রেপ্তারের ভয়ে পুরুষরা গ্রাম ছাড়া

ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার ঘিডোবে নির্বাচনী সহিংসতায় বিজিবি’র গুলিতে তিনজন নিহত ও ৫ জন আহত হওয়ার ঘটনায় শোকে স্তব্ধ হয়ে পড়েছে পুরো এলাকা। বন্ধ রয়েছে দোকান পাট। পুলিশের মামলার ভয়ে গা ঢাকা দিয়েছেন বেশিরভাগ পুরুষ। কান্না থামছে না কোন পরিবারেই। শিশু ও মহিলারা হয়ে পড়েছেন অসহায়। যদিও পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, ভয়ের কিছুই নাই। কোন নিরীহ মানুষকে হয়রানি করা হবে না।

সরেজমিনে দেখা যায়, ঘিডোবসহ আশপাশের এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। বন্ধ রয়েছে দোকান পাট।

সহিংসতার ঘটনায় গত সোমবার (২৯ নভেম্বর) অজ্ঞাতনামা ৭০০ গ্রামবাসীর নামে পুলিশ মামলা করায় গ্রেপ্তার আতঙ্কে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন ঘিডোবসহ আশ পাশের গ্রামের কয়েক হাজার পুরুষ। মহিলা, শিশু আর বৃদ্ধ ছাড়া তেমন কোনো পুরুষ লোকের দেখা মিলছে না।

কয়েকজন নারী জানান, এ এলাকার মানুষ শান্ত প্রকৃতির। ভোটের সঠিক ফলাফলের দাবি করাই তাদের কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমরা কখনো এমনটা চাইনি। এ নির্বাচনটি আমাদের জন্যে দুর্ভাগ্য বয়ে এসেছে।

তারা আরও জানান, ৭০০ জনের নামে মামলা হওয়ার খবর জানাজানি হওয়ার পর থেকে গ্রামের পুরুষরা দিনের বেলায় লুকোচুরি করে এলাকায় আসলেও রাতে পালিয়ে থাকছেন অন্যত্র। আমরা নারীরাও ভয় পাচ্ছি। আটকের শঙ্কায় আছি। তবে ছেলে-মেয়েদের নিয়ে ভয়ে ভয়ে বাড়িতেই আছি।

গুলিতে মারা যাওয়া ঘিডোবের আদিত্যের মা পারবতি রানী কান্না জড়িত কণ্ঠে বলেন, আমর বুকের ধন চলে গেল। শুনলাম আবার আমাদের নামেই মামলা। ছেলে হারানোর শোকের সঙ্গে গ্রেপ্তারের ভয়ে বাড়ির লোক এখন ফেরারি।

হাবিবপুরে মারা যাওয়া সাহাবলি ও মজাহারুলের বাড়িতেও কান্না থামছে না। স্ত্রীরা স্বামীর জন্য ডুকরে ডুকরে কাঁদছেন। ছোট শিশুরা কাঁদছেন পিতার জন্যে।

এদিকে হতাহতের ঘটনায় পুলিশের রংপুর রেঞ্জ থেকে গঠন করা তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি কাজ শুরু করেছেন। বুধবার দুপুরে কমিটির প্রধান রংপুরের এডিশনাল ডিআইজি শাহ মিজান শাফিউর রহমান শফির নেতৃত্বে তদন্ত কমিটির সদস্যরা ঘিডোব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র পরিদর্শন করে স্থানীয়দের জবানবন্দী লিপিবদ্ধ করেছেন।

পরে এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে তদন্ত কমিটির প্রধান এডিশনাল ডিআইজি বলেন, হতাহতের ঘটনায় কোন নিরীহ মানুষকে হয়রানি করা হবে না। এ নিয়ে গ্রামবাসীদের আতংকিত হওয়ার কিছুই নেই। সঠিক তদন্ত করে কেবল মাত্র দোষীদের বিরুদ্ধেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ সময় তদন্ত কমিটির সদস্য রংপুর রেঞ্জের এসপি খন্দকার খালিদ বিন নুর এবং পীরগঞ্জের এএসপি(সার্কেল) আহসান হাবিবসহ জেলা ও উপজেলা পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

পীরগঞ্জ থানার ওসি জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করলেও এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।

উল্লেখ্য, উপজেলার ঘিডোব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে ভোটের ফলাফলকে কেন্দ্র করে ২৮ নভেম্বর রাতে বিজিবি’র গুলিতে ৩ জন মারা যায়। আহত হয় ৫ জন।

এমএন

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS