Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

ইউপি সদস্যকে মারধর, চেয়ারম্যান জেলে

ইউপি সদস্যকে মারধর, চেয়ারম্যান জেলে
অনিল চন্দ্র রায়

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলার চেংঠি হাজরাডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান অনিল চন্দ্র রায়কে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। গতকাল বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) পঞ্চগড়ের চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. হুমায়ুন কবির সরকার তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করেন। একই ইউনিয়নের ইউপি সদস্য শহিদুল ইসলামের মামলায় তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়।

আদালত ও মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০২০ সালের ২৫ জুলাই চেংঠি হাজরাডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের ব্যাক্তিগত চেম্বারে ইউপি সদস্য শহিদুল ইসলামসহ বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা ভোগীদের কাছ থেকে অর্থ আদায় সংক্রান্ত বিষয়ে বৈঠক করছিলেন।

এসময় ইউপি সদস্য শহিদুল চেয়ারম্যানের নিকট এলজিএসপি-৩ প্রকল্পের অধীনে চেংঠি হাজরাডাংগা ইউনিয়নের ডাডুয়া হাটসেট নির্মাণ সংক্রান্ত তথ্য জানতে চান। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে চেয়ারম্যান অনিল চন্দ্র রায়সহ তার লোকজন ইউপি সদস্য শহিদুল ইসলামকে হত্যার উদ্দেশ্যে গলা টিপে ধরে এবং রড দিয়ে বেধড়ক মারধর করে। এ ঘটনায় গত বছরের ১৮ আগষ্ট ইউপি সদস্য মো. শহিদুল ইসলাম চেয়ারম্যান অনিল চন্দ্র রায় তার পুত্র মানিক চন্দ্র রায় ও কানাই চন্দ্র সেনকে আসামি করে আদালতে একটি মামলা দায়ের করে। আদালত মামলাটি পিবিআই পুলিশকে তদন্তের নির্দেশ দিলে পিবিআই গত বছরের ৯ ডিসেম্বর আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, আগামী ২৪ নভেম্বর মামলাটির রায় প্রদান করার দিন ধার্য্য করা হয়। বৃহস্পতিবার আসামিরা আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে আদালত মামলার প্রধান আসামি ইউপি চেয়ারম্যানের জামিন আবেদন নাকচ করে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

এমআই

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS