Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ১১ অক্টোবর ২০২১, ১৯:০৬
আপডেট : ১১ অক্টোবর ২০২১, ১৯:২৮

সন্দেহ করে প্রেমিকের থাপ্পড়, অত:পর... 

সন্দেহ করে প্রেমিকের থাপ্পড়, অত:পর... 
ব্রাহ্মণবাড়িয়া এক তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া এক তরুণীর (২০) মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল রোববার (১০ অক্টোবর) রাত ১টার দিকে শহরের কাউতলী দি আল ফালাহ হাসপাতাল থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। সে নাসিরনগর উপজেলার গোকর্ণ গ্রামের মেয়ে।

তবে পুলিশের ধারণা কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যা করেছে। এই ঘটনায় তার প্রেমিককে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার (১১ অক্টোবর) সকালে মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ওই তরুণী প্রায় তিন বছর আগে আল ফালাহ হাসপাতালে সহকারী নার্সের পদে যোগদান করেন। এর পাশেই রেসিডেন্সিয়াল স্কুলের স্টাফ মোহাম্মদ শীতলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। শীতলের বাড়ি জেলার কসবা উপজেলার নেমতাবাদ গ্রামে।

গত ২ বছর ধরে তাদের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সম্প্রতি শীতল জানতে পারে ওই তরুণীর আরও একটি ছেলের সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে। এই সন্দেহ থেকে দুজনের মধ্যে মনোমালিন্য চলছিল। রোববার সন্ধ্যায় তারা শহরের দাতিয়ারার ফারুকী পার্কে দেখা করেন। এসময় তরুণী আরও একটি ছেলের সঙ্গে সম্পর্ক থাকার কথা বলার পর শীতলের সঙ্গে কথা-কাটাকাটি চলে। এক পর্যায়ে ওই তরুণীকে একটি থাপ্পড় দেয় শীতল। এরপর ওই তরুণী তার হাসপাতালে গিয়ে ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যা করে। এই ঘটনায় প্রেমিক শীতলকে আটক করেছে পুলিশ।

ওই তরুণীর মামা অভিযোগ করে আরটিভি নিউজকে বলেন, আমার ভাগ্নি আত্মহত্যা করেছে নাকি শ্বাসরোধ করে করে হত্যা করেছে তা এখনো নিশ্চিত নয়। হাসপাতাল থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে, অথচ হাসপাতালের কেউ আমাদের কিছু এখনো জানায়নি এবং মর্গেও কেউ আসেনি। আমরা ভাগ্নির মৃত্যুর সঠিক কারণ জানতে চাই।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এমরানুল ইসলাম আরটিভি নিউজকে বলেন, আমরা ধারণা করছি ওই তরুণী কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যা করেছে। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত সঠিক বলা যাচ্ছে না। এই ঘটনায় প্রেমিককে আটক করা হয়েছে।

এমআই/এসকে

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS