Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

৮ বছর পর পরিবারের কাছে ফিরলো নাজিম

৮ বছর পর পরিবারের কাছে ফিরলো নাজিম
৮ বছর পর পরিবারের কাছে ফিরলো নাজিম

আট বছর আগে ঢাকার কালাচাঁদপুরের লিচুবাগান এলাকায় খেলতে গিয়ে হারিয়ে যায় ৯ বছরের শিশু নাজিম হাওলাদার। ট্রাফিক পুলিশের মাধ্যমে তাকে বাড্ডা থানায় দেওয়া হয়। সেখান থেকে আদালতের মাধ্যমে শিশু-কিশোর সংশোধনাগারে পাঠানো হয় তাকে। পরে নাজিমকে টাঙ্গাইল সরকারি শিশু পরিবার বালকে আনা হয়।

ঈদসহ বিভিন্ন উৎসবে শিশু পরিবারের শিক্ষার্থীরা বাবা মাসহ আত্মীয়স্বজনের কাছে গেলেও যেতে পারেনি নাজিম। এজন্য তার মাঝে সব সময় অন্যমনষ্ক ও হতাশা বিরাজ করতো। এ অবস্থা দেখে সরকারি শিশু পরিবার বালকের উপ-তত্ত্বাবধায়ক মো. সৌরভ তালুকদার তাদের পরিবারের খোঁজ করতে থাকেন। লিফলেট ও মাইকিংসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও পরিবারের খোঁজ করেন।

অবশেষে ৫ অক্টোবর নাজিমের পরিবারের সন্ধান পাওয়া যায়। তথ্য যাচাই-বাছাই শেষে বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) বিকেলে জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

নাজিম হাওলাদার বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার মধ্যম মহেষপুর গ্রামের লিটন হাওলাদারের ছেলে। তারা দুই ভাই এক বোন।

নাজিমের বাবা লিটন হাওলাদার বলেন, ‘আমি ৩০ বছর ধরে ঢাকায় রিকশা চালাই। ৮ বছর আগে ঢাকার কালাচাঁদপুরে লিচু বাগান এলাকায় খেলতে গিয়ে নাজিম হারিয়ে যায়। পরদিন থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হলেও তার কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। পাঁচদিন আগে রিকশা চালানোর সময় লিফলেট দেখে ছেলেকে চিনতে পেরে মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করি। আমার ছেলেকে ফিরে পাবো তা কল্পনাও করিনি। এতোদিন পর ছেলেকে পেয়ে আমি খুবই আনন্দিত।’

দীর্ঘ ৮ বছর পর বাবাকে পেয়ে নাজিম হাওলাদার জানায়, ঈদসহ বিভিন্ন উৎসবে যখন আমার সহপাঠীরা বাড়িতে যেত, তখন আমার বাবা-মার কথা মনে হতো। এতে আমার খুব কষ্ট হতো। আমিও ভাবতাম আমার বাবা মাকে ফিরে পাবো। পরিবারকে ফিরে পেয়ে দীর্ঘদিনের কষ্ট দূর হলো। যাদের মাধ্যমে আমার বাবা-মাকে ফিরে পেলাম, সেই সমাজসেবা বিভাগের কর্মকর্তাদের প্রতি আমি খুব কৃতজ্ঞ।

সরকারি শিশু পরিবার বালকের উপ-তত্ত্বাবধায়ক মো. সৌরভ তালুকদার বলেন, অনেকেই বিভিন্ন সময় বাড়িতে যায়। আবার অনেকের বাবা-মা তাদের সন্তানদের দেখতে আসেন। কিন্তু কয়েকজন বাড়িতে যায় না, তাদের বাবা মাও দেখতে আসে না। তাদের পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করি। সেই ধারাবাহিকতা দুই সপ্তাহ আগে থেকে নাজিমের ছবি দিয়ে লিফলেট করে ঢাকায় খুঁজতে থাকি। আমার কাজে অফিসের কর্মচারীরা অনেক সহযোগিতা করেছেন। খেয়ে না খেয়ে নাজিমের পরিবারের খোঁজ করেছি। অবশেষে মঙ্গলবার তার পরিবারের সন্ধান পাই। তথ্য যাচাই-বাছাই শেষে তাকে পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিতে পেরে খুবই ভালো লাগছে। বাকিদেরও পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হবে।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক ড. মো. আতাউল গনি বলেন, হারিয়ে যাওয়া কিশোর নাজিমকে সমাজসেবা বিভাগ তার বাবা-মার কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার ঘটনা খুবই প্রশংসনীয়। এ মানবিক কাজের সঙ্গে জড়িত সমাজসেবা কর্মকর্তা সৌরভ তালুকদারসহ সবাইকে ধন্যবাদ জানাই। এ কাজের স্বীকৃতি হিসেবে সমাজসেবা কর্মকর্তাদের পুরস্কৃত করা হবে।

পি

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS