Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

কুমিল্লা প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ০৭ অক্টোবর ২০২১, ১৩:২১
আপডেট : ০৭ অক্টোবর ২০২১, ১৩:৪৯

ভাতিজাকে ফাঁসাতে নিজের মেয়েকে গলাকেটে খুন 

ভাতিজাকে ফাঁসাতে নিজের মেয়েকে গলাকেটে খুন 
মেয়েকে গলাকেটে খুন 

কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলায় জমি নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে ভাতিজাকে ফাঁসাতে নিজের মেয়ে ছালমা আক্তারকে (১৪) গলাকেটে খুন করেছেন বাবা সোলেমান (৪০)।

আজ বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) দুপুরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) এম তানভীর আহমেদ সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। গত শুক্রবার (১ অক্টোবর) রাতে উপজেলার গল্লাই ইউনিয়নের বসন্তুপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আবদুর রহমান ও খলিল নামে ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত একটি দা জব্দ করা হয়েছে।

জানা গেছে, কুমিল্লার চান্দিনায় সালমা আক্তার (১৪) নামে এক মাদরাসাছাত্রীকে গলা কেটে হত্যার পর মরদেহ ফেলে দেয়া হয় পুকুরে। এরপর বাবা সোলাইমান (৪০) দাবি করেন তাকেও একইভাবে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। পাশাপাশি ফাঁসানোর চেষ্টা করেন ভাতিজা এবং ভাতিজি জামাইকে। কিন্তু আদতে পুরো বিষয়টি ছিল সাজানো নাটক। সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে নিজেই মেয়েকে শ্বাসরোধে হত্যার পর গলা কেটে মরদেহ ফেলে দেন পুকুরে। এ হত্যাকাণ্ডে অংশ নেন মোট ৭ জন।

কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) এম তানভীর আহমেদ জানান, এই হত্যার তদন্ত করতে গেলে বাদী ও আসামিদের কথায় গরমিল পাওয়া যায়। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে বাবা সোলেমানে, উকিল শ্বশুর আব্দুর রহমান ও প্রতিবেশী খলিল মাদরাসাছাত্রী ছালমার হত্যার সঙ্গে নিজেদের সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করেন।

তিনি জানান, সোলেমানের সঙ্গে ভাতিজা শাহ জালাল ও শাহ কামালের জমি নিয়ে বিরোধ রয়েছে। হত্যা মামলা দিয়ে ফাঁসিয়ে ভাতিজাদের জায়গা দখলের জন্য নিজ মেয়ে ছালমাকে হত্যা করেন সোলেমান। পরবর্তীতে বুধবার (৬ অক্টোবর) সোলেমান তাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে বলে যে সংবাদ প্রচার করেন তা ছিল সাজানো নাটক।

তিনি আরও জানান, আটককৃত ২ জন আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেন। ঘটনায় জড়িত অন্যদেরকেও গ্রেপ্তারে অভিযান চলমান রয়েছে।

জিএম/এসকে

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS