Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

হিলি প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:৫১
আপডেট : ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:৫৫

শিক্ষার্থীদের মনের ঘরে করোনার ভয়!

শিক্ষার্থীদের মনের ঘরে করোনার ভয়!
ফাইল ছবি

দেশে করোনাভাইরাসের প্রকোপ বৃদ্ধির কারণে বিভিন্ন সময় অনলাইন এবং বিকল্প পদ্ধতিতে শিক্ষা ব্যবস্থা চালু রেখেছিলেন সরকার। এতে দীর্ঘদিন ঘরবন্দী থাকা শিক্ষার্থীরা ভুগছেন নানাবিধ মানসিক সমস্যায়। অবশেষে প্রায় দেড় বছর বন্ধ থাকার পর আগামীকাল রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) সারাদেশের ন্যায় দিনাজপুরের হিলিতেও খুলছে দেশের প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

এদিকে যেসব শিক্ষার্থী প্রথমবার স্কুলে যাবে অথবা দীর্ঘ দিন স্কুল কলেজে যেতে পারেনি উচ্ছ্বাস নিয়ে অপেক্ষায় তারা। কিছুটা স্বস্তি ফিরেছে অভিভাবকদের মাঝে। অন্যদিকে শিক্ষার্থীদের বরণ করে পাঠদান চালু করার জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছেন বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষকরা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার প্রায় সব স্কুল কলেজের শিক্ষকরা ছাত্র-ছাত্রীদের বরণ করার জন্য সব ধরণের প্রস্তুতি সম্পূর্ণ করেছেন। কারণ অনেক দিন পর শিক্ষার্থীরা আবার স্কুলে আসবেন। মুখরিত হবে স্কুল ক্যাম্পাস। স্কুলের বেঞ্চ, টেবিল করা হয়েছে পাঠদানের উপযোগী। প্রাথমিক স্কুলগুলোতে আঁকা হচ্ছে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের জন্য বিভিন্ন পশু পাখির ছবি ও লেখা। স্কুল কলেজের প্রবেশ দ্বারে রাখা হয়েছে হাত ধোঁয়ার বেসিন। মাপা হবে শরীরের তাপমাত্রাও। মাঠের ঘাস কেটে করা হয়েছে খেলার উপযোগী। করোনার মহামারী শেষ করে আবারও মুখরিত হবে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমনটাই আশা সকলের।

হাকিমপুর (হিলি) উপজেলার বেশ কিছু শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা আরটিভি নিউজকে জানান, দীর্ঘ সময় স্কুল বন্ধ থাকার কারণে সন্তানরা একঘেয়েমি হয়ে পড়েছে। বাসাতে সব সময় মোবাইল নিয়ে গেম খেলা, গান শুনাসহ নানা কাজে ব্যস্ত থাকতো। সরকারের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও নির্দেশনা মাথায় রেখেই সন্তানদের স্কুলে পাঠানো হবে। তবে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ কিছুটা কমলেও খুব ভয়ের মধ্যেই রয়েছি সবাই।

তারা আরও জানান, করোনা সংক্রমণ মাঝে মাঝে নিম্নগতি আবার মাঝে মাঝে ঊর্ধ্বগতি হচ্ছে। বেশিরভাগ অভিভাবককে সন্তান নিয়ে গণপরিবহন বা রিকশায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাতায়াত করতে হবে। এতে করে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হবার ভয় পাচ্ছেন তারা।

কথা হয় উপজেলার কিছু শিক্ষার্থীর সঙ্গে। তারা আরটিভি নিউজকে জানান, করোনাভাইরাসের কারণে ভয় লাগছে তবে অনেক দিন পর স্কুল খুলে দিয়েছে সেই জন্য তারা স্কুলে যাবেন। অপর দিকে অনেক দিন বন্ধু-বান্ধবীদের সঙ্গে তেমন ভাবে দেখা হয়নি। মাঝে মাঝে শুধু ফোনে কথা হতো। স্বাস্থ্যবিধি মেনেই শিক্ষার্থীরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাবেন।

জিএম

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS