Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮

১২ ঘণ্টার ট্রলারে আটকে থাকার পর সেন্টমার্টিনে ফিরেছে যাত্রীরা

১২ ঘন্টা ট্রলারে আটকে থাকার পর সেন্টমার্টিনে ফিরেছে যাত্রীরা
সেন্টমার্টিনে ফিরেছে যাত্রীরা

প্রায় ১২ ঘণ্টা শ্বাসরুদ্ধকর উদ্ধার তৎপরতায় আটকাপড়া ট্রলার দুটি কক্সবাজারের টেকনাফের সেন্টমার্টিন তীরে ফিরেছে। উৎকণ্ঠায় থাকলেও সবাই নিরাপদে ফিরেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সংবাদকর্মীরা। বুধবার (৪ আগস্ট) ভোর ৫টার দিকে তারা সেন্টমার্টিন জেটিতে পৌঁছালে অপেক্ষায় থাকা স্বজনরা তাদের গ্রহণ করেন।

ট্রলার ও সেন্টমার্টিনের বাসিন্দার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মঙ্গলবার (৪ আগস্ট) বিকেল ৫টার দিকে গণযাত্রীবাহী একটি ট্রলার সেন্টমার্টিনের উদ্দেশ্যে টেকনাফ ছেড়ে যায়। যেতে যেতেই মিয়ানমার সীমান্ত নাইক্ষংদিয়ার পাশের চড়ে পৌঁছালে ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে। ঠিকঠাক করতেই জোয়ারের পানি নেমে ভাটা হয়ে যায়। এতে চড়ে আটকা পড়ে ট্রলারটি। চালক অপর একটি ট্রলারকে উদ্ধারের জন্য খবর দেয়। ট্রলারে পুরুষের পাশাপাশি ৪০ জন নারী ও শিশু ছিল। তারা দীর্ঘ ১২ ঘণ্টা উদ্বেগ উৎকণ্ঠায় ছিলেন।

এদিকে তাদের মধ্যে অনেকেই টিকা দিতে টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স গিয়েছিলেন। বাকিরা মালামাল নিয়ে সেন্টমার্টিনে ফিরছিলেন। সেন্টমার্টিন থেকে অপর একটি ট্রলার উদ্ধারে গেলে সেটিও চড়ে আটকা পড়ে। পরে টেকনাফ উপজেলা প্রশাসনের পরামর্শক্রমে উদ্ধারে যায় অপর দুটি ট্রলার। ট্রলারদ্বয় জোয়ারের ভাটার কারণে বেশ কিছু সময় উদ্ধারের কাজ চালাতে পারেনি। পরে জোয়ার আসলে ট্রলার দুটি উদ্ধার করে বুধবার (৪ আগস্ট) ভোর ৫টার দিকে সেন্টমার্টিনের জেটিতে নিয়ে আসে।

ট্রলারের যাত্রী আব্দুল্লাহ, মহিউদ্দিন, আরেফা ও ছেনুয়ার বেগম মুঠোফোনে আরটিভি নিউজকে জানান, উদ্বেগ উৎকণ্ঠায় ঘুমহীন রাত পার করতে হয়েছে। প্রাকৃতিক ডাকসহ নানান সমস্যায় ছিলাম।

সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুর আহমেদ আরটিভি নিউজকে বলেন, মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) সন্ধ্যা ৬টার দিকে একটি যাত্রীবাহী ট্রলার সেন্টমার্টিন যাওয়ার উদ্দেশ্যে টেকনাফ ছেড়ে আসে। নৌপথের নাইক্ষ্যংদিয়ার কাছাকাছি পৌঁছালে ট্রলারটি একটি চড়ের মধ্যে আটকা পড়ে। পরে ট্রলারটির ইঞ্জিন বিকল হয়ে যায়। ওই ট্রলারে ৩০ জনের বেশি যাত্রী ছিল। দ্রুত তাদের উদ্ধারে অপর একটি ট্রলারে গেলে দ্বিতীয় ট্রলারটিও আটকে যায়। পরে আরও দুটি ট্রলারের মাধ্যমে তাদের উদ্ধার করা হয়েছে। এসব যাত্রীদের অনেকেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টিকে নিতে গিয়েছিলেন।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও পারভেজ চৌধুরী আরটিভি নিউজকে জানান, ট্রলার দুটিকে উদ্ধারের জন্য কোস্টগার্ডের সহযোগিতায় আরও দুটি ট্রলার পাঠিয়ে উদ্ধার করা হয়। উদ্বেগ উৎকণ্ঠায় থাকলেও সবাই নিরাপদে বাড়িতে ফিরেছেন।

জিএম

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS