Mir cement
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮

পাহাড়ের দুর্দিনে হাতির বাচ্চা প্রসব

পাহাড়ের দুর্দিনে হাতির বাচ্চা প্রসব

কক্সবাজারের টেকনাফের পাহাড়গুলোতে বন্যপ্রাণীর দুর্দিনে একটি বন্যহাতি বাচ্চা প্রসব করেছে।

গেল সোমবার সকালে কক্সবাজার দক্ষিণ বন-বিভাগের আওতাধীন টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়নের হরিখোলা গ্রামের হরিখোলা গ্রামের দক্ষিণ পশ্চিম দিকে পাহাড়ের থলিতে একটি মা হাতি বাচ্চাটি প্রসব করে।

বনবিভাগ জানায়, সোমবার হাতি প্রসবের খবর দায়িত্বরত সিপিজি সদস্যরা স্থানীয় বন বিভাগকে অবগত করে। এসময় দ্রুত হোয়াইক্যং রেঞ্জের এসিএফের নেতৃত্বে একটি দল ওই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। সেই সঙ্গে কুদুংগুহা পাহারা দলের কয়েকজন সদস্যদেরকে হাতিটার গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করার জন্য পালাক্রমে দায়িত্ব পালনের জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়।

জানা গেছে, উখিয়া টেকনাফে হাতি চলাচলের ১৪টি করিডোর ছিল। বর্তমানে তা রোহিঙ্গাদের দখলে। খাদ্যাভাব ও পাহাড় উজাড় হওয়াতে বন্যহাতির সংখ্যা অনেক কমেছে। এমন সময় বন্যহাতির আগমনে সুসংবাদ বলে জানান কক্সবাজার নিসর্গ নেটওয়ার্কের কোষাধ্যক্ষ হারুনর রশিদ সিকদার।

তিনি বলেন, বন্যপ্রাণী বন ও পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করে থাকে। তাই তাদের যত্ন করা সকলের উচিত।

হোয়াইক্যং রইক্ষ্যং বিট কর্মকর্তা মাইন উদ্দিন চৌধুরী আরটিভি নিউজকে জানান, রোহিঙ্গা আসার পর করিডোর বন্ধ ও পাহাড় উজাড় হওয়ায় নানা কারণে হাতির সংখ্যা কমেছে। এমন সময় হাতির প্রসবের বিষয়টি নিঃসন্দেহে সুসংবাদ।

হোয়াইক্যং রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক মো. তারেক রহমান আরটিভি নিউজকে বলেন, সব-কিছু প্রাকৃতিক ভাবেই ঘটছে এবং মা হাতি ও বাচ্চা সুস্থ এবং স্বাভাবিক রয়েছে। তাতের চলাচল নির্বিঘ্নে করতে ও গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করতে কুদুংগুহা পাহারা দলের সদস্যদেরকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

এসএস

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS