Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

কক্সবাজারে বালু খুঁড়তে গিয়ে আবারও মিললো বস্তাভর্তি গুলি

কক্সবাজারে বালু খুঁড়তে গিয়ে আবারও মিললো বস্তাভর্তি গুলি
কক্সবাজারে বালু খুঁড়তে গিয়ে আবারও মিললো বস্তাভর্তি গুলি

কক্সবাজার বাঁকখালী মোহনা থেকে বালু উত্তোলনের সময় উঠে এসেছে বস্তাভর্তি বিপুল পরিমাণ গুলি। শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) বিকেলে পাওয়া এসব গুলি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়কার বলে ধারণা করছেন বিমানবাহিনী সদস্যরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বিমানবন্দরের রানওয়ে সম্প্রসারণের কাজ করছে সিসি ই সিসি নামের একটি চায়না কোম্পানি। কক্সবাজারের বাঁকখালীর নাজিরার টেকের কাছাকাছি এলাকায় ওই কোম্পানির কার্যালয় নির্মাণের জন্য বালি ভরাটের কাজ দেয়া হয় ফাতেমা ড্রেজার কোম্পানিকে। প্রতিষ্ঠানটি কক্সবাজার বিমানবন্দরের উন্নয়ন কাজের জন্য পার্শ্ববর্তী বাঁকখালী নদী ড্রেজিং করে মাটি এনে তা ভরাট করছিল। এ কাজের মাটি খোঁড়াখুঁড়ির মধ্যে বস্তাভর্তি গুলি দেখতে পায় কর্মরত শ্রমিকরা।

পরে শ্রমিকেরা শেখ হাসিনা ঘাঁটির বাংলাদেশ বিমান বাহিনীকে খবর দেয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে বস্তাভর্তি তাজা গুলি দেখতে পায় বিমান বাহিনী কতৃর্পক্ষ। পরে বিমান বাহিনী কতৃর্পক্ষ পুলিশে খবর দেয়। এসময় ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সামনে উদ্ধার হওয়া গুলি গণনা করে ১,৫৮০টি পাওয়া যায়। উদ্ধারকৃত গুলির মধ্যে মেশিনগান, থ্রি নট থ্রি ও পিস্তলের গুলি রয়েছে। গণনা শেষে বিমান বাহিনীর নিয়মানুসারে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে বিমান বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়।

এদিকে ১২ এপ্রিল দিনগত রাত ১২টার দিকে একই এলাকা থেকে ২ হাজার রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছিলো পুলিশ। উদ্ধারকৃত গুলির মধ্যে মেশিনগান, থ্রি নট থ্রি ও পিস্তলের গুলি রয়েছে।

কক্সবাজার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম জানান, ১৬ এপ্রিল বিকালে ১৫৮০ রাউন্ড এবং ১২ এপ্রিল দিনগত রাত ১২টার দিকে ২ হাজার রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে পুলিশ। গুলিগুলো অনেক পুরনো। ধারণা করা হচ্ছেম এগুলো দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালীন সময়ের গুলি। তবে তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানা যাবে।

পি

RTV Drama
RTVPLUS