logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮

নওগাঁয় আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘরে ফাটল, ঝুঁকিপূর্ণ বসবাস

Cracked, risky living in the shelter project house in Naogaon
নওগাঁয় আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘরে ফাটল, ছবি: প্রতিনিধি

নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার কাচারি বেলঘড়িয়া পুকুরপাড়ে সরকারের আশ্রয়ন প্রকল্পের নির্মিত ঘরে ফাটল ধরেছে। অসহায় পরিবার ঘর মেরামত করতে না পারায় জীবনের ঝুঁকি নিয়েই নিরুপায় হয়ে বসবাস করছেন ফাটল ধরা ঘরে। যে কোনও সময় ইটের দেওয়াল ধসে প্রাণহানি ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন পরিবারটি।

জানা গেছে, গত ২০১৭ সালে গৃহহীনদের জন্য সরকারের আশ্রয়ন প্রকল্পের আওতায় রাণীনগর উপজেলার কালীগ্রাম ইউনিয়নের কাচারি বেলঘড়িয়া গ্রামে পুকুরপাড়ে ২ কক্ষ বিশিষ্ট ইটের পাকা ২০টি ঘর নির্মাণ করা হয়। ওই সময় সেনাবাহিনীর অনুকূলে ঘর নির্মাণ কাজ শেষ করা হয়। ওই সালের মে মাসে ঘর নির্মাণ শেষে সুবিধাভোগীদের মাঝে ঘর হস্তান্তর করা হয়। ঘর নির্মাণের মাত্র আড়াই বছরের মাথায় সুবিধাভোগী সাবের আলীর ঘরের দেয়াল ফেটে যায়। বর্তমানে দেয়ালের ইট খুলে পরার উপক্রম হয়ে পরেছে। যে কোনও সময় দেয়াল ধ্বসে প্রাণহানির ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। পরিবারের লোকজন বলছেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানালে তারা এসে পরিদর্শন করে ছবিও তুলে নিয়ে গেছেন। কিন্তু এরপরেও কোন সংস্কার হচ্ছে না।

আরও পড়ুন :

সুবিধাভোগী সাবেরের স্ত্রী জুলেখা বিবি বলেন, আমরা গরীব মানুষ। আমার সংসারে ২ মেয়ে ও ১ ছেলেসহ ৫ সদস্য রয়েছে। পান খাবারের জন্য বাড়িতে চুন তৈরি করে হাট-বাজারে বিক্রি করে ছেলে-মেয়েসহ পরিবারের সদস্যদের ভরণপোষণ করতে হয়। ব্যবসা করে যে পরিমাণ আয় রোজগার হয় তা দিয়ে কোনোরকম সংসার চলে। পাকা ঘর মেরামত করতে গেলে যে পরিমাণে টাকার প্রয়োজন তা আমাদের নেই। বাধ্য হয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়েই আতঙ্ক আর অশঙ্কার মধ্যে নির্ঘুম রাত কাটাতে হচ্ছে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।

এ ব্যাপারে রাণীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল মামুন বলেন, খবর পেয়ে ঘরগুলো পরিদর্শন করেছি। যেহেতু ঘরগুলো হস্তান্তরের পর আমাদের আর দায়িত্ব থাকে না। তারপরেও সরকারি কোনও বরাদ্দ পেলে সংস্কার করা হবে।

পি

RTV Drama
RTVPLUS