logo
  • ঢাকা সোমবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১১ মাঘ ১৪২৭

চান্দিনায় দুই মেয়র প্রার্থীকে এলাকা ছাড়ার হুমকি

হুমকি×কুমিল্লা×পৌরসভা×নির্বাচন×বাংলাদেশ×
আরটিভি নিউজ
কুমিল্লার চান্দিনা পৌরসভা নির্বাচনে দুই মেয়র প্রার্থীকে এলাকা ছাড়তে হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। ভোট গ্রহণের পাঁচ দিন আগেই কর্মী সমর্থক নিয়ে এলাকা ছেড়ে চলে না গেলে মামলা-হামলাসহ নানাভাবে হয়রানির হুমকিও দেয়া হচ্ছে।

সরকার দলের প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের পক্ষ থেকে এমন হুমকি ধমকি দেয়ার অভিযোগ করা হয়। মঙ্গলবার ওই পৌরসভার নির্বাচনে বিএনপি দলীয় প্রার্থী শাহ আলমগীর খাঁন এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী হাজী শামীম হোসেন সাংবাদিকদের কাছে এসব অভিযোগ করেন।

সরকার দলের নেতাকর্মীদের ব্যাপক মহড়া এবং শোডাউনসহ হুমকি ধমকির কারণে এলাকায় চরম ভীতিকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে বলেও অভিযোগ করা হয়।

বিএনপির দলীয় প্রার্থী এবং সাবেক মেয়র শাহ আলমগীর খাঁন অভিযোগ করে আরটিভি নিউজকে বলেন, প্রতিক বরাদ্দের পর আমরা প্রচার-প্রচারণা শুরু করলে সরকার দলের প্রার্থীর পক্ষ থেকে শুরু হয় হুমকি-ধমকি, তাদের অব্যাহত হুমকির মুখে আমরা এলাকার ভোটারদের কাছে যেতে পারছি না, আমাদের পোস্টার ফেস্টুন ব্যনার ছিঁড়ে ফেলে দেয়া হচ্ছে।

প্রচার গাড়িতে একাধিকবার হামলা করা হয়েছে। আমিসহ আমাদের নেতাকর্মীদেরকে এলাকা ছেড়ে দেয়ার জন্য হুমকি ধমকি দেয়া হচ্ছে। আমরা সুষ্ঠু নির্বাচনের কোনও পরিবেশ দেখছি না। এ নিয়ে ভোটারদের মাঝেও চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। 

স্বতন্ত্র প্রার্থী হাজী শামীম হোসেন আরটিভি নিউজকে বলেন, আমার মাঠ খুবই ভালো। আমার ব্যাপক জনসমর্থন দেখে সরকার দলের প্রার্থীর পক্ষ থেকে প্রতিনিয়তই নির্বাচনের মাঠ এবং এলাকা ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য হুমকি দেয়া হচ্ছে। নির্বাচনের পাঁচ দিন আগে এলাকা না ছাড়লে মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে পাঠানোর হুমকি দেয়া হচ্ছে।

তাদের হুমকির মুখে আমার কর্মীরা মাঠে কাজ করতে পারছে না। তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনের দেয়া সুষ্ঠু‚ অবাধ অংশগ্রহণমূলক শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানের প্রতিশ্রুতিতে আমি ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অংশ নিয়েছি। এখন দেখছি কমিশনের পক্ষ থেকে তেমন পরিবেশ সৃষ্টি করা হচ্ছে না। নির্বাচন কমশিনকে বিতর্কিত করার জন্য সরকার দলের প্রার্থী ও তার কর্মী সমর্থকরা এসব পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে।

এ সব অভিযোগ অস্বীকার করে আওয়ামী লীগ দলীয় মেয়র প্রার্থী শওকত হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ওই দুই মেয়র প্রার্থী আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করছে। আমার নেতা অধ্যাপক আলী আশরাফ এমপি কোন বিশৃঙ্খলায় বিশ্বাস করে না। আমরাও ওনার অনুসারী হিসেবে অরাজকতায় বিশ্বাসী না। আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন চাই।

এ বিষয়ে সহকারী রিটার্নিং অফিসার আহসান হাবিব আরটিভি নিউজকে বলেন, শান্তিপূর্ণ পরিবেশে একটি সুন্দর নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে আমরা কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। প্রার্থীদের যেকোনো অভিযোগ আমরা গুরুত্বের সঙ্গে দেখি।

প্রসঙ্গত, আগামী ১৬ জানুয়ারি এ পৌরসভায় ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

জেবি   

RTV Drama
RTVPLUS