logo
  • ঢাকা বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

‘আমার স্বামী নাজমার গর্ভপাত করেনি, তারা নাটক সাজিয়েছে’

  পঞ্চগড় প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

|  ১১ নভেম্বর ২০২০, ১৫:৩৮ | আপডেট : ১১ নভেম্বর ২০২০, ১৫:৪৫
'My husband Nazma didn't, have an abortion, rtv news
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন নিলুফা বানু
পঞ্চগড়ে মিথ্যা মামলায় জড়ানোর প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে সদর উপজেলার অমরখানা ইউনিয়নের ঠুটাপাখুরী গ্রামের সয়বুর রহমানের স্ত্রী নিলুফা বানু। আজ বুধবার দুপুরে পঞ্চগড় প্রেসক্লাবের হল রুমে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে নিলুফার বানু জানান, দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে প্রতিবেশী আমিনার রহমান ও নাজমা দম্পতির সঙ্গে তাদের বিরোধ চলে আসছিল। ২০১৫ সালে তাদের বিরুদ্ধে একটি মামলা করে সয়বুর। এরপর তারা আরও সহিংস হয়ে উঠে। গত মার্চে তারা আবারও সয়বুরের পরিবারের ওপর হামলা করে। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত অভিযোগ করে সয়বুর। পরে বিষয়টি তদন্ত করে পুলিশ আদালতে প্রসিকিউশন দাখিল করে। গত ৫ নভেম্বর তারা আমাদের জমিতে গাছ কাটতে আসলে আমরা বাধা দেই।

ওইদিন কোনও মারধরের ঘটনা না ঘটলেও মারধরের কারণে নাজমার গর্ভপাত হয়েছে বলে নাটক সাজিয়ে তারা সয়বুরের পরিবারের পাঁচ সদস্যকে আসামি করে পঞ্চগড় সদর থানায় একটি মামলা করে।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি নিলুফা দাবি করেন, সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমসহ গণমাধ্যমে যে ছবি ছড়িয়ে পড়েছে তা ভুলভাবে প্রচার করা হচ্ছে। ওই নারীর হাতে একটি বেদা ছিলো সেটি আমার স্বামী কেড়ে নিয়ে ফেলে দেন। মারধরের কোনও ঘটনাই ঘটেনি। মারধরের ঘটনা ঘটলে নিশ্চয়ই তাদের লোকজন চুপ করে থাকতো না। আমরা মাত্র দুজন লোক ছিলাম। তারা ১০-১৫ জন লোক ছিলো। এছাড়া যে সন্তান গর্ভপাতের কথা বলা হয়েছে সেটি আল্ট্রাসনোগ্রামের রিপোর্টের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। তাদের হুমকিতে আমাদের বাড়িতে থাকা কঠিন হয়ে পড়েছে। তাই আমরা ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করছি। একই সঙ্গে এই মিথ্যা মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়ার দাবি জানান তিনি।

এর আগে গত কয়েক দিন ধরে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমসহ বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমে জমি নিয়ে বিরোধে প্রতিপক্ষের আঘাতে এক নারীর গর্ভপাতের বিষয়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। বিষয়টি এখনও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে আলোচিত- সমালোচিত হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে তারা সংবাদ সম্মেলন করে এই অভিযোগের প্রতিবাদ জানিয়েছেন। জেলার সদর উপজেলার অমরখানা ইউনিয়নের ঠুটাপাখুরি গ্রামের সয়বুর রহমানের লাঠিকাঘাতে প্রতিবেশী অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ নাজমা বেগমের গর্ভপাত হয়েছে বলে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে একটি ছবি ছড়িয়ে পড়ে। এমনকি ওই গৃহবধূ ৬ নভেম্বর সয়বুর রহমানসহ তার পরিবারের ৫ সদস্যকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। ৫ আসামির মধ্যে সয়বুর রহমান ও তার ভাই আবুল হোসেন পলাতক রয়েছে। সয়বুরের স্ত্রী নিলুফার বানু, মেয়ে শারমিন আক্তার বিথী ও ভাই সরফরাত জামিনে রয়েছেন।

জেবি

RTVPLUS
bangal
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ৪৫১৯৯০ ৩৬৬৮৭৭ ৬৪৪৮
বিশ্ব ৬০৩২৫২৬৯ ৪১৭২৯৫৩৩ ১৪১৮৯৯২
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়