logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২১, ৫ মাঘ ১৪২৭

মানসিক ভারসাম্যহীন সেই সন্তানসম্ভবার পাশে পুলিশ ও স্বেচ্ছাসেবীরা

Mentally unbalanced pregnant Suvar
মানসিক ভারসাম্যহীন সন্তানসম্ভবা সুভা
টাঙ্গাইলের সখীপুরে মানসিক ভারসাম্যহীন সন্তানসম্ভবা সুভার (প্রকৃত নাম সম্পা) পাশে দাঁড়িয়েছে থানা পুলিশ ও উৎসর্গ ফাউন্ডেশন নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। 

বুধবার সম্পার গর্ভবতী হওয়ার বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে আরটিভি অনলাইনে ‘মানসিক প্রতিবন্ধী নারীর গর্ভে কার সন্তান’ শিরোনামে সচিত্র সংবাদ প্রকাশ হয়। পরে উৎসর্গ ফাউন্ডেশন তার চিকিৎসার দায়িত্ব নেয়। অন্যদিকে ওই রাতেই সম্পা ও তার মাকে খুঁজে বের করে সখীপুর থানা পুলিশ।

সম্পার বাড়ি উপজেলার কাকড়াজান ইউনিয়নের গড়বাড়ি গ্রামে। মায়ের নাম শহর বানু, বাবা মৃত পাঞ্জু মিয়া। তারপর তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে মেডিকেল চেকআপসহ চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়। ডাক্তারের পরামর্শে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘উৎসর্গ ফাউন্ডেশন’ ওই গর্ভবতীর জন্য রক্তের ব্যবস্থা করে।

সখীপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আমির হোসেন পাগলির জন্য নতুন জামা-কাপড়, জুতাসহ যাবতীয় প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে হাসপাতালে আসেন। এ সময় সখীপুর থানার ওসি (তদন্ত) এএইচএম লুৎফুল কবির উদয়, প্রেসক্লাব সভাপতি শাকিল আনোয়ার, সাংবাদিক মোজাম্মেল হক সজল, উৎসর্গ ফাউন্ডেশনের সভাপতি নাফিস হাসানসহ বেশ কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবী উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরেই শহরের রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে বেড়ানো নাম-পরিচয়হীন ওই পাগলি যুবতী সম্পা। অযত্ন আর অবহেলায় বেড়ে উঠা মানসিক ভারসাম্যহীন মেয়েটি কারো লালসার শিকার হয়ে এখন প্রায় ৮ মাসের গর্ভবতী। কিন্তু সে বলতে পারেনা কে তার সন্তানের বাবা। 

ওসি আমির হোসেন বলেন, বিষয়টি নিতান্তই মানবিক। আমি নিজেই ডাক্তারের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ করে খোঁজখবর নিচ্ছি। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনকে বলেছি, টাকার প্রয়োজন হলে আমাকে জানাবে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শাহীনুর আলম বলেন, মেয়েটির চিকিৎসা না পেলে শারীরিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়ত। ওর সার্বিক বিষয় পর্যালোচনা করে বাচ্চা প্রসব পর্যন্ত ওকে হাসপাতালে ভর্তি রাখার ব্যবস্থা করেছি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, মেয়ের পাশে চুপচাপ বসে আছেন মা শহর বানু।

স্থানীয় ইউপি সদস্য জয়নাল আবেদীন বলেন, ছোটবেলা থেকেই সম্পা মানসিক ভারসাম্যহীন। কোনোভাবেই তাকে বাড়িতে রাখা যেতো না। গ্রামে তাদের কোনোমতে থাকার একটি ঘর আছে। 

জিএ 

RTV Drama
RTVPLUS