logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১, ৭ বৈশাখ ১৪২৮

সারাদেশে সাত দিনের লকডাউন শুরু

A seven-day lockdown began across the country
লকডাউনে মতিঝিলের ফাঁকা রাস্তা

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রুখতে আজ (সোমবার) থেকে সাত দিনের ‘লকডাউন’ শুরু হয়েছে দেশে। এর মাধ্যমে সরকার একগুচ্ছ বিধিনিষেধের বেড়াজালে সংক্রমণ বিস্তার রোধের চেষ্টা করছে। করোনার বিরুপ পরিস্থিতির কারণে প্রায় এক বছর পর আবার স্বাভাবিক জীবনযাত্রা নিয়ন্ত্রণে একগুচ্ছ বিধিনিষেধ দিতে হলো সরকারকে।

সাত দিনেই সংক্রমণ কমিয়ে আনতে নিয়মিত কার্যক্রমে ফেরার লক্ষ্যে দেশজুড়ে ‘লকডাউন’ঘোষণা করে সরকার। গত বছর সংক্রমণ কমাতে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছিল। এমনকি কয়েক দফায় সেটির মেয়াদ বাড়ানো হয়েছিল।

আরও পড়ুন... লকডাউনে ব্যাংকের লেনদেনের সময় কমলো

করোনা মহামারীতে গত বছর থেকে শুরু হয়ে দীর্ঘ সময় ধরে সংক্রমণের হার কম থাকায় সাম্প্রতিক মাসগুলোতে দৈনন্দিন কর্মকাণ্ডে ছন্দ ফিরতে শুরু করে। এমন সময় মার্চের শেষ সপ্তাহ থেকে করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকে। করোনার এই অব্যাহত ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণের ধারা সামাল দিতে শেষ পর্যন্ত গত শনিবার লকডাউনের ঘোষণা দেয় সরকার, যা আজ (সোমবার) সকাল থেকে শুরু হয়েছে।

গতকাল রোববার এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারির মাধ্যমে সরকার এ সময়ে কী করা যাবে আর কী করা যাবে না তা সুষ্পষ্ট করে জানিয়ে দেয়। প্রজ্ঞাপনে গণপরিবহন চলাচল বন্ধের পাশাপাশি বাজার-মার্কেট, হোটেল-রেস্তোরাঁ বন্ধের সিদ্ধান্ত হয়। সরকারি নির্দেশনা অনুসরণ করে এরপর বিভিন্ন ঘোষণা আসতে থাকে। ব্যাংক ও পুঁজিবাজারে লেনদেন সময় কমানো হয়। অন্যান্য ক্ষেত্রেও নতুন সিদ্ধান্ত হয়।

অপরদিকে পরিস্থিতি বিবেচনায় লকডাউনের মেয়াদ বাড়তে পারে। লক্ষ্য সাত দিনেই সংক্রমণ কমিয়ে আবার নিয়মিত কার্যক্রমে ফেরা। গত বছর সংক্রমণ কমাতে ঘোষণা করা হয়েছিল সাধারণ ছুটি, যেটির কয়েক দফা মেয়াদ বাড়ানো হয়েছিল। লকডাউনে গণপরিবহন বন্ধ রেখে অফিস খোলা রাখায় বিপাকে পরেছে সাধারণ মানুষ। গণপরিবহন না চললেও রাস্তায় সিএনজি চালিত অটোরিকশা দেখা যায়। অফিসগামী মানুষরা জানান, অফিস খোলা কিন্তু যাওয়ার মতো কোন যানবাহন নেই।

পি

RTV Drama
RTVPLUS