logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৪ মাঘ ১৪২৭

ফায়ার সার্ভিসের সম্মাননা পেলেন স্বেচ্ছাসেবকরা

fire, service, honored, volunteers
ফায়ার সার্ভিসের সম্মাননা পেলেন স্বেচ্ছাসেবকরা
ভূমিকম্প, বিধ্বস্ত ভবনে অনুসন্ধান, উদ্ধার, অগ্নি নির্বাপন ও প্রাথমিক চিকিৎসাসহ সকল দুর্যোগ মোকাবিলায় এগিয়ে আসা ২৫ জন স্বেচ্ছাসেবককে সম্মাননা দিয়েছে বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তর।

আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবক দিবস উপলক্ষে আজ শনিবার (০৫ ডিসেম্বর) ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কর্র্র্র্তৃক মিরপুর ট্রেনিং কমপ্লেক্সে স্বেচ্ছাসেকদের সম্মাননা দেয়।

স্বেচ্ছাসেকরা দক্ষ সহায়ক শক্তি হিসেবে প্রয়োজনীয় জ্ঞান ও বিশেষ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষতা অর্জনের পাশাপাশি সরকারের জরুরি বাহিনীকে সর্বাত্নক সহযোগিতার লক্ষ্যে গঠন করা হয় আরবান কমিউনিটি ভলান্টিয়ার। যারা সামাজিক বিপদে বা প্রয়োজনে স্বেচ্ছায় শ্রমের প্রণোদিত হয়ে সকল দুর্যোগ মোকাবেলায় প্রশিক্ষণ পাওয়া সারা দেশে ৬২ হাজার স্বেচ্ছাসেবক তৈরির কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তর।

দুর্যোগ, অগ্নিকান্ড মোকাবিলায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আত্মনিয়োগকারিদের সাহসিকতা পূর্ণ কাজে অংশগ্রহণ করা স্বেচ্ছাসেবকদের সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স। সম্বর্ধনা অনুষ্ঠানে এ বছর ফায়ার সার্ভিসের সাথে কাজ করায় সাহসিকতা সম্মাননা পেয়েছেন ৮টি বিভাগ হতে মোট ২৫ জন স্বেচ্ছাসেবক।

সম্মাননা প্রাপ্তরা হলেন- ঢাকা বিভাগ হতে ফারজানা হোসেন সিনথিয়া, হাজী মো. ইকবাল আহমেদ, অয়ণ ভূঁঞা, জহির উদ্দিন, রায়হান তুহিন, জান্নাতুল ফেরদৌস তিন্নি, ফাতেমা আকতার, নূরে আফরিন, মনির হোসেন, মিজানুর রহমান মিজান, শামীম আহমেদ, খায়রুল ইসলাম, সাবরিনা সুলতানা সাফা, আনোয়ার হোসেন, ওমর ফারুক, চট্টগ্রাম থেকে আলী হোসাইন ও সানজানা আক্তার, সিলেট থেকে সুলতান মো. সাব্বির আহমেদ ও শরীফা আক্তার লিমা, গাজীপুর থেকে নাজিম উদ্দিন, রংপুর থেকে গোলাম সাজ্জাদ হায়দার, বগুড়া থেকে শরিফুল ইসলাম বিদ্যুৎ, নারায়ণগঞ্জ থেকে শহিদ আলামিন রবিন এবং সাভার থেকে গোলাম রাব্বানী।

স্বেচ্ছাসেবকদের সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ সাজ্জাদ হোসাইন বলেন, ‘ভলান্টিয়ারদের সাহসিকতার সাথে ও স্বেচ্ছায় বিভিন্ন অগ্নিকান্ডে সরকারের জরুরি বাহিনীকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করাতে দেশে দুর্যোগকালীন সময়ে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ অনেকটাই কমিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে। এজন্য তাদের প্রতি আমাদের কৃতজ্ঞতা রয়েছে। দেশে বর্তমানে ৪৩৬টি ফায়ার স্টেশন আছে। আগামী জুনের মধ্যে ২৮৬টা স্টেশন চালুর পরিকল্পনা আছে। এছাড়া ১৩ হাজার ১ শ ১০ জন ফায়ারকর্মী নিয়োজিত আছে, সে হিসেবে ১৪শ’ মানুষের জন্য একজন ফায়ারকর্মী রয়েছে। এছাড়া আগামীতে ভূমিকম্পের মতো বড়-বড় দুর্যোগ মোকাবেলায় সক্ষমতা অর্জন করতে না পারলেও বিগত দিনের তুলনায় বর্তমানে অনেকটাই বাহিনীর সক্ষমতা বেড়েছে। এর আগে আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবক দিবসটিকে ঘিরে ট্রেনিং কমপ্লেক্স হতে র‌্যালি বের হয়ে মিরপুরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করেন।

অনুষ্ঠানে অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রশাসন ও অর্থ) মোঃ হাবিবুর রহমান (যুগ্মসচিব), পরিচালক (প্রশিক্ষণ, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) লেফটেন্যান্ট কর্নেল এস. এম জুলফিকার রহমান, বিএসপি, পিএসসি, ইঞ্জিনিয়ার্স ও পরিচালক (অপারেশন ও মেইনটেন্যান্স) লেফটেন্যান্ট কর্নেল জিল্লুর রহমান, পিএসসিসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এফএ

RTV Drama
RTVPLUS