• ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০১৯, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

রঙ বদলে সুপ্রভাত হচ্ছে ‘সম্রাট’

গাজীপুর প্রতিনিধি
|  ২১ মার্চ ২০১৯, ১০:১৯ | আপডেট : ২১ মার্চ ২০১৯, ১২:০৫
সব কিছুই রয়েছে আগের মতোই। সেই অদক্ষ চালক, পুরনো গাড়ি, ফিটনেস সমস্যা। এ সবের কিছুই বদলাইনি, বদল হয়েছে শুধু রঙ। সেই সঙ্গে পাল্টানো হয়েছে নামটি। সেই পরিচিত ‘সুপ্রভাত’ পরিবহন হয়ে গেল ‘সম্রাট’ পরিবহন।

whirpool
বুধবার বিকেলে গাজীপুর মহানগরের গাজীপুরা এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেল এ চিত্র। নতুন রঙ দিয়ে সুপ্রভাতের নাম পাল্টিয়ে লেখা হচ্ছে ‘সম্রাট’।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ-বিআরটিএ নিষেধাজ্ঞা দেয়ার আগেই সুপ্রভাতের কয়েকটি বাসে রঙ করে ‘সম্রাট ট্রান্সলাইন (প্রা.) লি.’ লিখতে দেখা যায়।

--------------------------------------------------------
আরো পড়ুন: সুপ্রভাত বাসের সেই চালক ৭ দিনের রিমান্ডে
--------------------------------------------------------

এভাবেই রাজধানীর সদরঘাট থেকে গাজীপুর মহানগরের গাজীপুরা সড়কে চলাচলকারী ‘সুপ্রভাত স্পেশাল বাস সার্ভিস’ পরিবহনের বাসের রং রাতারাতি বদলে নাম দেয়া হচ্ছে সম্রাট ট্রান্সলাইন (প্রা.) লিমিটেড।

রাজধানীতে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীকে মেরে ফেলার পর সুপ্রভাত স্পেশাল সার্ভিস রাতারাতি নাম পাল্টে হচ্ছে সম্রাট ট্রান্সলাইন(প্রা.)লিমিটেড।

অবশ্য গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের(দক্ষিণ)সহকারী কমিশনার নজরুল ইসলাম বৃহস্পতিবার সকালে আরটিভি অনলাইনকে জানিয়েছেন গাড়ির নাম পরিবর্তন করে মহাসড়কে চলাচল করলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে। তাদের ধরতে এরইমধ্যে বিশেষ নজরধারী রয়েছে বলে তিনি বলেন।

গাজীপুরা এলাকার স্থানীয় একজন বলেন, ‘রাইতে-দিনে কাম কইরা বাসের নাম পরিবর্তন করতাছে। এখন নাকি ছাত্ররা সুপ্রভাত গাড়ি দেখলেই ধরে।’  

ভাওয়াল বদরে আলম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজেন শিক্ষার্থী রাজ্জাক হোসেন জানান, গত মঙ্গলবার রাজধানীর বসুন্ধরা এলাকায় সুপ্রভাত বাসের চাপায় বাংলাদেশ ইউনির্ভাসিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) ছাত্র আবরার আহাম্মেদ চৌধুরী নিহত হয়। তাই বাস মালিক কর্তৃপক্ষ ছাত্রদের ভাংচুরের হাত থেকে বাঁচতে এ অভিনব কৌশল অবলম্বন করছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন জানায়, সুপ্রভাত বাস সার্ভিসটি সদরঘাট থেকে উত্তরা পর্যন্ত চলাচলের অনুমতি রয়েছে। কিন্তু স্থানীয় পরিবহন শ্রমিক নেতার প্রভাব খাটিয়ে গাজীপুর মহানগরের গাজীপুরা পর্যন্ত নিয়মিত চলাচল করেছে। এ পরিবহনের প্রায় ৫০ থেকে ৬০ টি বাসের অনুমতি থাকলেও প্রায় দুই থেকে আড়াই’শ বাস প্রতিদিন ঢাকা থেকে গাজীপুরা চলাচল করেছে।

আরো পড়ুন:

জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়