logo
  • ঢাকা শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ২১ ফাল্গুন ১৪২৭

ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহ থেকে বাংলাদেশে টিকা দেয়া শুরু হবে (ভিডিও)

ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে শুরু হবে করোনার টিকা প্রয়োগ। ২ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় জেলা উপজেলার হাসপাতালগুলোতে সংরক্ষণ করা হবে টিকা। সাত হাজার কেন্দ্র থেকে টিকা প্রয়োগের প্রস্তুতির পাশাপাশি ট্রেনিং দেয়া হচ্ছে ৪২ হাজার স্বাস্থ্য-কর্মীকে। এমনটাই জানালেন প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. এ বি এম আবদুল্লাহ। তবে জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. বে-নজীর আহমেদ বলছেন সার্বিক প্রস্তুতি এখনও অসম্পূর্ণ।

করোনা মহামারিতে বিশ্বজুড়ে এ পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছেন ২০ লাখ ৪৯ হাজারের বেশি মানুষ, আক্রান্ত হয়েছেন নয় কোটি ৬০ লাখের বেশি। মহামারি মোকাবিলায় বিশ্বের কয়েকটি দেশ এরই মধ্যে টিকা দেয়া শুরু করেছে। এমন পরিস্থিতিতে ভারত থেকে উপহার হিসেবে ২০ লাখ ডোজ টিকা পাচ্ছে বাংলাদেশ। ২১ জানুয়ারি দেশে পৌঁছানোর পর টিকার প্রয়োগ শুরু হবে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে।

মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. আবদুল্লাহ বলেন, ভ্যাকসিনটি নরমাল ফ্রিজে সংরক্ষণ করা যাবে। এটি জেলা আর উপজেলা পর্যায়েও করা যাবে। এই জন্য আমি মনে করি সংরক্ষণ করা অসুবিধা হবে না।

ডাক্তার আবদুল্লাহর মতে অতীতে নানা রোগের টিকা প্রয়োগের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে সফল হবে সরকার। তবে বিভিন্ন কোম্পানির মাধ্যমে যে পরিমাণ টিকা আসবে তার সঠিক সংরক্ষণ নিয়ে সংশয় জানিয়েছেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. বে-নজীর আহমেদ।

তিনি বলেন, সরকার সিদ্ধান্ত নেবে টিকা প্রতি মাসে বা প্রতি সপ্তাহে কতগুলো আসবে। যাতে করে সে অনুযায়ী প্রস্তুতি থাকে। টিকার কার্যকারিতা তদারিকতা করা দরকার সময় মতো।

করোনার টিকা প্রয়োগের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া রোধ ও এন্টি বডি টেস্ট ব্যবস্থাপনার প্রস্তুতি জোরালো করার পরামর্শ এই স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞের।

জিএম/এমকে

RTV Drama
RTVPLUS