• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

বিড়িকেও ২১ বছর বাঁচিয়ে রাখার দাবি

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৬ জুন ২০১৮, ১৩:৪৮ | আপডেট : ২৬ জুন ২০১৮, ১৪:০১
প্রস্তাবিত ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে সিগারেট বন্ধে যেমন ২০৪০ সাল বেঁধে দেয়া হয়েছে, বিড়ি বন্ধেও একই সময় দেয়ার দাবি জানিয়েছে এ খাতের শ্রমিকরা।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবে চলতি বাজেট, বিড়ি শিল্প ও শ্রমিক শীর্ষক এক আলোচনায় তারা  এ দাবি জানান। বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশন ও  গবেষণা উন্নয়ন কালেক্টিভিটি (আরডিসি) যৌথ ভাবে এই আলোচনার আয়োজন করে।

বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক এম কে বাঙালী বলেন, বাজেটে বিড়ির ওপর আরোপিত মূল্যস্তরও প্রত্যাহার করতে হবে। একইসাথে বিড়ি শিল্প বন্ধের আগে শ্রমিকদের বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা দরকার।

প্রস্তাবিত বাজেটে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত জানান, আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে দেশে বিড়ি উৎপাদন নিঃশেষ হবে। আর ২০৪০ সালের মধ্যে সিগারেটের উৎপাদন শেষ হবে।

বাজেট বক্তব্যে তিনি বলেন, এদেশ থেকে তামাক নিঃশেষ করার সীমানা ২০৪১ সাল নির্ধারণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর সঙ্গে সঙ্গতি রেখে বিড়ির উৎপাদন ২০৩০ সালে এবং সিগারেটের উৎপাদন ২০৪০ সালে নিঃশেষ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: ‘এলএনজির পরেও গ্যাসের দাম বাড়ানো যৌক্তিক নয়’
--------------------------------------------------------

বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশনের দাবি, ফিল্টার বিড়ির ওপর থেকে প্রস্তাবিত বাজেটে আরোপ করা ২৫ শতাংশ কর প্রত্যাহার, বিড়ি শিল্পকে কুটির শিল্প ঘোষণা, বিড়ি শ্রমিকদের মজুরি প্রতি হাজারে ১০০ টাকা নির্ধারণ করতে হবে।

বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি আমিন উদ্দিন বিএসসির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অথিতি ছিলেন ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা। এছাড়া ছিলেন জাসদের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান ও বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাবেক সভাপতি মনজুরুল আহসান খান প্রমুখ।

আরও পড়ুন: 

এসআর

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়