logo
  • ঢাকা রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন

  ২৩ নভেম্বর ২০১৯, ২১:২৪
আপডেট : ২৩ নভেম্বর ২০১৯, ২১:৪৭

মুশফিকের ব্যাট শুধু আক্ষেপই বাড়াল

মুশফিকের ব্যাট শুধু আক্ষেপই বাড়াল
মুশফিক অপরাজিত আছেন ৭০ বলে ৫৯ রানে
গোলাপি বল যেন গলার কাঁটা। না পারছেন গিলতে, না পারছেন ফেলতে। টাইগারদের কি দুঃসহ যন্ত্রণা ইডেনের কৃত্রিম আলোয়। টাইগার ব্যাটসম্যানদের একের পর এক আত্নহুতির মাঝেও মুশফিকের অর্ধশত রানের ইনিংসটা আক্ষেপই বাড়িয়ে দিয়েছে দ্বিতীয় দিন শেষে।

ইন্দোর টেস্টে তিন দিনে হারের লজ্জা মাথায় নিয়ে কলকাতার গোলাপি রঙে ভালো কিছুরই আশা করেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু শুরু থেকে এখন পর্যন্ত যা ঘটেছে তাতে ভালোর ছিটে ফোঁটাও নেই বললে চলে।

এর ভেতর যোগ হয়েছে একের পর এক আঘাত। লিটন দাস, নাঈম হাসান গতকাল প্রথম দিনেই ছেড়েছেন মাঠ। আজ ছাড়লেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

প্রথম ইনিংসে সফরকারীরা ১০৬ রানে অল-আউট হবার পর ভারত কাপ্তানের ১৩৬ রানের ইনিংসে ২৪১ রানের নিচে চাপা পড়ে বাংলাদেশ। স্বাগতিকরা তাদের প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে ৯ উইকেটে ৩৪৭ রান তুলে।

দ্বিতীয় ইনিংসে লিড তাড়া করে লিড দেয়ার লড়াইয়ে নেমে ধ্বসে পড়ে পড়ে টাইগার ব্যাটিং লাইন-আপ।

সাদমান ইসলাম ০, ইমরুল কায়েস ৫, মুমিনুল হক প্রথম ইনিংসের মতোই শূন্য, মোহাম্মদ মিঠুন সাজঘরে ফেরেন ৬ রান করে। দলের যখন ভরাডুবি তখন হাল ধরেন দুই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ আর মুশফিকুর রহিম।

কিন্তু মসৃণ ছিল না পথটা। দুজনে ৬৯ রানের জুটি গড়ার পর মাঠ ছাড়েন রিয়াদ, হ্যামষ্ট্রিংয়ের চোটে। ৩৯ রানে ফেরেন সাজঘরে।

এরপর মেহেদী হাসান মিরাজের সঙ্গে ৫১ রানের জুটি গড়ে তুলে নেন অর্ধশতক। কিন্তু খেই হারালেন মিরাজ। ২২ বলে ১৫ রানে বিদায় নেন ইশান্ত শর্মার বলে ক্যাচ দিয়ে।

এরপর মুশফিক-তাইজুল ইসলামের জুটিটা আশা জুগিয়েছে, এই জুটি বোধহয় শেষ করে দিবে দিনটা। কিন্তু হলো কই?

মুশফিক একপ্রান্ত আগলে রাখেন ঠিকই কিন্তু উমেশ যাদবের বাউন্সারে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন তাইজুল। তার ব্যাটে আসে ২৪ বলে ১১ রা।

দিন শেষে মুশফিক অপরাজিত আছেন ৭০ বলে ৫৯ রানে। দিন যত গড়াচ্ছে গোলাপি বলের মায়া কাটছে বাংলাদেশেরও। মুশফিকের ব্যাট যেন সেটাই জানান দিল।

প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট পাওয়া ইশান্ত শর্মা দ্বিতীয় ইনিংসে এখন পর্যন্ত নিয়েছেন ৪ উইকেট। উমেশ যাদব নিয়েছেন ২টি উইকেট। দিন শেষে বাংলাদেশ পিছিয়ে আছে ৮৯ রানে। হাতে আছে মাত্র ৪ উইকেট।

এমআর/

RTVPLUS
  • বাংলাদেশের ভারত সফর এর পাঠক প্রিয়