• ঢাকা শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

ম্যাচ সেরার পুরস্কার দলের সবার সঙ্গে ভাগ করব: মনিকা

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ৩০ এপ্রিল ২০১৯, ২০:২৪ | আপডেট : ৩০ এপ্রিল ২০১৯, ২১:০০
ছবি-বাফুফে
গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে গোল করে সানজিদা ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার জিতে নিয়েছিলেন। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেছিলেন, পুরস্কার হিসেবে পাওয়া ৫০০ ইউএস ডলার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে রেখে দেবেন। মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে সেমিফাইনালে মঙ্গোলিয়ার বিপক্ষে ৩-০ গোলে জয় পেয়েছে লাল-সবুজরা। এই দিন দলের হয়ে প্রথম গোলটি করেন মনিকা চাকমা। সাজেদা খাতুনের হেড থেকে পাওয়া দূর পাল্লার শটের মাধ্যমে দলকে ১-০ গোলে এগিয়ে দেন এই মিডফিল্ডার।

whirpool
ম্যাচের পর কোচ গোলাম রব্বানী ছোটনের সঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মনিকা। পার্বত্য চট্টগ্রামের খাগড়াছড়ির এই ফুটবলারের কাছে প্রশ্ন করা হয়েছিল ম্যাচ সেরার পুরস্কার দিয়ে কি করবেন তিনি। মনিকা বলেন, গোলটি পেতে মাঠে থাকা আরও ১০ জন আমাকে সাহায্য করেছেন। আমি চাইবো সবার সঙ্গে ভাগ করে নিতে।

তিনি বলেন, দেশবাসী আমাদের সমর্থন করতে মাঠে এসেছেন এই জন্য তাদের ধন্যবাদ জানাই। আমরা যাতে ফাইনালে গিয়ে নিজেদের সেরাটা দিতে পারি সবাই দোয়া করবেন।

গ্রুপ পর্বে কৃষ্ণা রানী সরকার ও সিরাত জাহান স্বপ্না চোট পাওয়ায় সেমিফাইনালে অংশ নিতে পারেননি। দলের দুই অভিজ্ঞ খেলোয়াড়কে ফাইনালে পাওয়া যাচ্ছে তো?

গোলাম রব্বানী ছোটন জানালেন, স্বপ্না আগেই টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়েছে। তাই তাকে আর পাওয়া যাচ্ছে না। অন্যদিকে কৃষ্ণা দ্রুত চোট কাটিয়ে উঠেছে। তিনি বলেন, আজকে কৃষ্ণার অবস্থা বেশ ভালো। আশা করি তাকে ফাইনালে পাওয়া সম্ভব।

আজকের ম্যাচে কৃষ্ণা-স্বপ্নাকে পাওয়া যায়নি। ফাইনালে প্রতিপক্ষ শক্তিশালী লাওস। এ বিষয়টি নিয়ে বাড়তি কোনো সমস্যা হবে কি?

বাংলাদেশ কোচ বললেন, আগেই বলেছি আমাদের ২৩ জনের স্কোয়াডে সবার পারফরম্যান্স ১৯-২০। সেটাই আমাদের বাড়তি শক্তি। যদিও কৃষ্ণা-স্বপ্নারা আন্তর্জাতিক স্তরে অনেক ম্যাচ খেলেছে তাই তাদের অভিজ্ঞতা আমরা কাজে লাগাতে পারি। তবে আজকের ম্যাচে মারজিয়া-তহুরারা ভালো খেলেছে। আশা করি ফাইনালেও দল ভালো কিছুই উপহার দেবে।

ওয়াই/ এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়