logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২০, ১৫ মাঘ ১৪২৭

শানাকারের একার রানও করতে পারলো না রংপুর

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২২:০৫
শানাকারের একার রানও করতে পারলো না রংপুর
শানাকারের একার রানও করতে পারলো না রংপুর
তারকা সমৃদ্ধ রংপুর রেঞ্জার্স পেরে উঠতে পারলো না কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের সামনে। মোহাম্মদ নাবী, শাহাজাদ, তাসকিন, মোস্তাফিজের মতো তারকা খেলোয়াড়দের নিয়েও নূন্যতম লড়াই করতে পারেনি রেঞ্জার্সরা।

দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় কুমিল্লার অধিনায়ক ধাসুন শানাকা। ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা নড়বড়ে। মোহাম্মদ নাবীর করা ইনিংসের প্রথম বলেই বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন ইয়াসির আলী।

এরপর সৌম্য সরকার তুলেছিলেন ক্ষণিকের ঝড়। কিন্তু থিতু হতে পারেননি বেশিক্ষণ। ১৮ বলে ২৬ রান করে বিদায় নেন মোস্তাফিজের বলে।

কুমিল্লার ওপেনার ভানুকা রাজাপাকসেকে ১৫ রানে ফেরান অফ-স্পিনার সঞ্জিত সাহা। এরপর ২৫ রান করা ডেভিড মালানকেও ফেরান সঞ্জিত।

সাব্বির রহমান জ্বলে উঠতে পারেননি। ১৭ বলে ১৯ রান করে ক্যাচ তুলে দেন মোস্তাফিজের বলে।

৮৫ রানে যখন কুমিল্লার ৫ উইকেট নেই, তখন হাল ধরলেন অধিনায়ক ধাসুন শানাকা। শেষদিকে শানাকা যা করে দেখালেন সেটা অনেক দিন মনে থাকবে দর্শকদের। একের পর এক ছক্কা হাঁকিয়ে মাত্র ২৩ বলেই পূর্ণ করেন অর্ধশত রান। শেষ পর্যন্ত ৯টি ছয় আর ৩ চারে ৩০ বলে করেন ৭৩ রান।

২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৭৩ রান তোলে কুমিল্লা। রংপুরের হয়ে সমান ২টি করে উইকেট নেন মোস্তাফিজ ও সঞ্জিত। এছাড়া ১টি উইকেট নেন মোহাম্মদ নাবী।

কুমিল্লার দেয়া লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে রংপুর উইকেট হারাতে থাকে নিয়মিত বিরতিতে। আল-আমীন, সৌম্য সরকারদের সামনে দিশেহারা রংপুর তুলতে পারেনি ধাসুন শানাকার রানও!

শাহাজাদের ব্যাটে আসে ১৩, নাঈম শেখ করেন ১৭ রান। সব মিলে ১৪ ওভারে ৬৮ রানেই অল-আউট হয়ে যায় রংপুর রেঞ্জার্স।

আল-আমীন নেন ৩ উইকেট। ২টি করে উইকেট নেন সৌম্য ও সানজামুল। ১ উইকেট করে নেন মুজিবুর রহমান ও আবু হায়দার।

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • বঙ্গবন্ধু বিপিএল এর সর্বশেষ
  • বঙ্গবন্ধু বিপিএল এর পাঠক প্রিয়