• ঢাকা সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯, ৩ আষাঢ় ১৪২৬

উইকেট ভালো হলে এমন আরও ম্যাচ দেখা যাবে: মাশরাফি

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১১ জানুয়ারি ২০১৯, ২০:২৭ | আপডেট : ১১ জানুয়ারি ২০১৯, ২০:৪৬
মাশরাফির কাছে এটা থ্রিলিং ম্যাচ। জিততে জিততে হেরে যাওয়া। জয়ের দ্বারপ্রান্তে এসে হঠাতই খেই হারিয়ে ফেলা। দিন শেষে রংপুরের বিপক্ষে ২ রানের জয় পেয়েছে ঢাকা। তাতে ম্যাড়ম্যাড়ে বিপিএলে যেন প্রাণ ফিরে এসেছে।

whirpool
সাকিব-মাশরাফির দ্বৈরথ বলে মানুষের আকাঙ্ক্ষাটা বেশি ছিল দর্শকদের ভেতর কিন্তু মাশরাফির কাছে অন্য দশটা ম্যাচের মতোই ছিল এই ম্যাচও।

‘আমরা তো সবাই একই টিমের খেলোয়াড়। এ ধরণের টুর্নামেন্টে সব দেশেই এমন  আলাদা আলাদা টিমের হয়ে খেলা হয়, আর এমনও না যে এই প্রথম একে অন্যের বিপক্ষে খেলেছি। এখানে আলাদা কিছু নাই। সবাই চায় সবার টিমকে জেতাতে।

ঢাকা-রংপুরের ম্যাচটা রঙ ছড়িয়েছে বিপিএলে। এই ম্যাচে জয় দিয়ে ঢাকা ডায়নাইমাইটস একটা শোধ তুলেছে বলা যায়। গতবারের আসরে ফাইনালে ঢাকাকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো শিরোপা জিতেছিল রংপুর। সব ছাপিয়ে মাশরাফির কাছে এই ম্যাচটাই ছিল উত্তেজনায় ভরপুর।

‘আসলে ষষ্ঠ বারের মতো চলছে বিপিএল। আমার কাছে মনে হয় যে, কুমিল্লায় যখন খেলেছিলাম তখন ফাইনালটাও ছিল ওরকম ম্যাচ।  প্রথম বা দ্বিতীয়বারের বিপিএলে সিলেটের সঙ্গে গেইল ১০০ করল, ওই ম্যাচটাও ভেরি ক্লোজ ছিল। এরকম আছে অনেক ম্যাচই। আজকের ম্যাচ আমার কাছে মনে হয় এক্সাইটিং।’

ঢাকার জয়ে রংপুর অধিনায়ক কৃতিত্ব দিতে ভুলে যাননি অভিষেকে নায়ক বনে যাওয়া আল ইসলাম আর দুর্দান্ত ক্যাচ ধরা পোলার্ড আর আন্দ্রে রাসেলকে।

‘ক্যাচটা আউটস্টেন্ডিং ছিল। ওই টিমের সম্ভাব্য দুই সেরা ফিল্ডারই ওই যায়গায় ছিল। ওরা দুইজনই ক্যাপাবল এই ধরণের ক্যাচের জন্য। অনেক টুর্নামেন্ট, ইন্টারন্যাশনাল ম্যাচ সব জায়গায় দেখেছি ওদের ক্যাচ সো, নাথিং আনস্পেক্টেড ওদের কাছ থেকে। অবশ্যই, ক্রুশাল মোমেন্টে এমন ক্যাচ ম্যাচের মোড় ঘুড়িয়ে দেয়। আসলে ওরা যা প্ল্যান করেছিল, সেরা জায়গায় সেরা ফিল্ডার সেট করেছিল। আর, হ্যা অবশ্যই ও ভালো করেছে। বলে ভ্যারিয়েশন আছে। ওর জন্যও ভালো হয়েছে যে এই ধরণের স্টেজে এসে ক্রুশাল মোমেন্টে ভালো বল করে ম্যাচ জিতিয়েছে। ওই সময় নার্ভ টা ধরে রেখেছিল এবং ডেলিভার করতে পেরেছিল।’

এমআর/ এমকে 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়

আজকের প্রশ্ন :

  • হ্যাঁ
    ক্লিক করুন
  • না
    ক্লিক করুন
  • মন্তব্য নেই
    ক্লিক করুন
মোট ভোট সংখ্যা : ৯০