• ঢাকা বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
logo

তাসকিন ইস্যুতে অস্ট্রেলিয়ার দেখানো পথে বিসিবি!

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ১৪ মে ২০২৪, ১৭:১৩
তাসকিন
ছবি : সংগৃহীত

আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নবম আসরে তাসকিন আহমেদকে নাজমুল হোসেন শান্তর ডেপুটি করে স্কোয়াড ঘোষণা করা হয়েছে। বিষয়টি টাইগার ক্রীড়াপ্রেমীদের জন্য একপ্রকার চমকই বলা যায়। যেখানে বৈশ্বিক এই টুর্নামেন্টের দলে তার থাকা নিয়েই শঙ্কা ছিল, সেখানে তাকে সহ-অধিনায়ক করা খানিকটা আশ্চর্যজনক।

মূলত ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর থেকেই ডেপুটি পদটি ফাঁকা। কিন্তু বড় কোনো ইভেন্টের আগে এসে এমন একজন এই দায়িত্ব অর্পণ করা হলো, যিনি কিনা কখনোই এমন পদে ছিলেন না। বলা যায়, বিস্ময় আর অনিশ্চয়তার বিশ্বকাপে সহ-অধিনায়কত্বই তাসকিনের একমাত্র প্রাপ্তি। আর বিশ্বকাপকে সামনে রেখে তাসকিন ইস্যুতে অস্ট্রেলিয়ার দেখানো পথেই হাঁটল বিসিবি!

এর আগে, ওয়ানডে বিশ্বকাপে ইনজুরড ট্র্যাভিস হেডকে নিয়েই স্কোয়াড সাজিয়েছিল অজিরা। বিশ্বকাপের প্রথম কয়েকটি ম্যাচে তার সার্ভিসও পায়নি তারা। শেষ পর্যন্ত ট্র্যাভিস হেডে ভর করেই বিশ্বকাপের শিরোপা উল্লাসে মাতে প্যাট কামিন্সের দল। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে ৪ ছক্কা ও ১৫ চারে ১৩৭ রানের কালজয়ী ইনিংস খেলেন এই ওপেনার।

বৈশ্বিক ইভেন্টে তাসকিন কেন সহ-অধিনায়ক, সেই ব্যাখ্যাও দিয়েছেন প্রধান নির্বাচক গাজী আশরাফ হোসেন লিপু। তার ভাষ্য, ‘এটা একটা গ্লোবাল টুর্নামেন্ট। এর আগে, তো আমি কোনো দল ঘোষণা করতে আসিনি, এটা বিসিবির সিদ্ধান্ত। বিসিবি থেকে আমাদেরকে অবহিত করা হয়েছে যে তারা ভাইস ক্যাপ্টেন হিসেবে তাসকিন আহমেদকে বিবেচনা করেছে।’

এ সময় ঢাকা এক্সপ্রেসকে নিয়ে উচ্চাশার কথাও জানালেন প্রধান নির্বাচক। তার মন্তব্য, ‘তিনি অন্য একটি জেনারেশনের উদীয়মান একজন খেলোয়াড়। একটা ডিপার্টমেন্টকে লিড করছেন এবং দীর্ঘদিন ধরে জাতীয় দলের হয়ে বিভিন্ন ফরম্যাটে খেলছেন। সেজন্য হয়তো তাকে ডিজার্ভিং ক্যান্ডিডেট মনে করেছে বিসিবি।’

এদিকে বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকলেও যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে স্বাগতিকদের সঙ্গে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজে তাকে ঘিরে অনিশ্চয়তার কথাও শোনালেন লিপু। প্রধান নির্বাচকের দাবি, ‘এটা আপনাদের ভালো মেডিকেল কমিটি বলতে পারবে। যতটুকু তথ্য জানা আছে, সেই তথ্যের আলোকে আমরা আশা রাখছি, তিনি (তাসকিন) হয়তো বিশ্বকাপ চলার কোনো একটা পর্যায়ে সুস্থ হয়ে যাবেন। সেই আলোকেই তাকে দলভুক্ত করা হয়েছে।’

আইসিসির ব্যাখ্যা দিয়ে লিপু যোগ করেন, ‘আপনারা হয়তো অনেকেই ওয়াকিবহাল আছেন, এবারের সিলেকশন এবং রি-প্লেসমেন্ট পলিসি আইসিসির যেটা সেখানে আপনি তিনজন খেলোয়াড়কে ক্যারি (রিজার্ভ) করতে পারবেন। পরবর্তী পর্যায়ে কোনো খেলোয়াড় যদি অনাকাঙ্ক্ষিত রিকোভারি না হয়, তখনও আপনি তাকে বদলাতে পারবেন। এমন না যে সবাইকে ফ্রেশ নিয়ে ২৫ মে’র মধ্যে ঢুকতে হবে। তারপর কেউ ইনজুরড হলে বদলাতে পারবেন না, ব্যাপারটা এমন না। আপনি একজন ইনজুরড খেলোয়াড় নিয়েও টুর্নামেন্টে ঢুকতে পারবেন।’

মন্তব্য করুন

daraz
  • খেলা এর পাঠক প্রিয়
আরও পড়ুন
বিশ্বকাপের আগে দুঃসংবাদ পেলেন সাকিব
ফিরে দেখা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক যারা
লঙ্কানদের হারিয়ে টাইগারদের ‘হুমকি’ দিয়ে রাখল নেদারল্যান্ডস
অধিনায়কত্বের ধার বাড়াতে সাকিব-রিয়াদকে পাশে চান শান্ত
X
Fresh