• ঢাকা রোববার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১
logo

শাহিন-আমিরদের এক হাত নিলেন রমিজ রাজা

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ১৩ মে ২০২৪, ১৭:০৩
পাকিস্তান
ছবি- গেটি ইমেজ

বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নিতে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলছে পাকিস্তান। প্রথম ম্যাচেই আইরিশদের বিপক্ষে ৫ উইকেটে হেরেছে বাবর-রিজওয়ানরা। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে সাত উইকেটের বড় জয় পেয়েছে পাকিস্তান। কিন্তু প্রশ্ন উঠেছে পাকিস্তানি পেসারদের খরুচে বোলিং নিয়ে।

আয়ারল্যান্ডের মতো একটি দল পাকিস্তানের বোলারদের পিটিয়ে ১৯৩ রান তোলা মনে হয় একটু অস্বাভাবিকই। যেখানে শাহিন শাহ আফ্রিদি, নাসিম শাহ ও মোহাম্মদ আমিরের মতো বিশ্বমানের পেসাররা বল করছেন; সেখানে আইরিশরা কীভাবে স্কোর প্রায় দুইশ’র কাছাকাছি নিয়ে যায়, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিশ্লেষকরা।

সেই তালিকায় সবার সামনে রয়েছেন দেশটির সাবেক ক্রিকেটার রমিজ রাজার। ম্যাচ জিতলেও পেসারদের ধুয়ে দিতে দেরি করেননি তিনি।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে রমিজ রাজা বলেন, আয়ারল্যান্ড ২০০ রানের কাছাকাছি লক্ষ্য দিয়েছিল। যা দেখে মনে হয়েছিল যে, আমাদের বোলাররা পিছনে ছিল। তারা যদি রিজওয়ান এবং জামানের ক্যাচ নিতে পারতো তাহলে পাকিস্তানের জন্য লক্ষ্য তাড়া করা কঠিন হয়ে উঠতো।

রিজওয়ান ও ফখর জামানের ব্যাটে ভর করে দ্বিতীয় ম্যাচ জিতেছে পাকিস্তান। রিজওয়ান করেন ৪৬ বলে ৭৫ আর ফখর করেন ৪০ বলে ৭৮। যে কারণে রমিজ রাজা মনে করছেন, যদি রিজওয়ান ও ফখরের ক্যাচ মিস না করতো আইরিশরা, তাহলে পাকিস্তানকে হারতে হতো।

তিনি বলেন, আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে পাকিস্তানের শীর্ষ বোলাররা এত রান দিলে ভবিষ্যতে দলের অবস্থা খারাপ হয়ে যাবে। পাকিস্তানের শক্তি এবং সাফল্য বোলারদের ওপর নির্ভর করে। বিশেষ করে পেসাররা।

‘তারা গত বছর ভারতে বিশ্বকাপের পর থেকেই ভালো করতে পারছে না। প্রথম দুই বল ভালো করে তো পরের তিন বল করে খুবই বাজে। এটি পরিস্থিতিকে কঠিন করে তোলে।’

এই ম্যাচে সবচেয়ে বাজে বোলিং করছেন শাহিন আফ্রিদি। ৪ ওভারে ৪৯ রান দিয়েছেন বাঁহাতি এই পেসার। প্রতি ওভারে খরচ ১২.২৫। আরেক পেসার আমির খরচ করছেন ওভার প্রতি ১১ রান। ৪ ওভারে আমিরের মোট খরচ ৪৪ রান।

মন্তব্য করুন

daraz
  • খেলা এর পাঠক প্রিয়
আরও পড়ুন
অস্ট্রেলিয়ার জয়ে সুপার এইটে ইংল্যান্ড
সুপার এইটের পথে ইংল্যান্ড!
ইংল্যান্ডকে সুপার এইটে নিতে আইসিসির যত প্রচেষ্টা!
বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত কানাডা-ভারত ম্যাচ, অপরাজিত থেকে সুপার এইটে কোহলিরা