logo
  • ঢাকা বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬

কোণঠাসা হুইপ সামশুল, সামনে আসছে অতীত

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২০:১১
হুইপ সামশুল কোণঠাসা আসছে অতীত
সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরী সরকারের জুয়াবিরোধী অভিযানের বিরোধিতা করা এবং চট্টগ্রাম আবাহনীর এক কর্মকর্তাকে তার ছেলের হুমকির পর বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে হুইপের অতীত ইতিহাস। তার এ ধরনের আচরণ ও বক্তব্যে ক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগ। যদিও পুরো বিষয়টিকে ষড়যন্ত্র বলে দাবি করছেন সরকার দলীয় এই সংসদ সদস্য।

ক্যাসিনো বিরোধী অভিযানে চট্টগ্রাম আবাহনীসহ বিভিন্ন ক্লাবে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযানের পর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানান সরকারদলীয় এ হুইপ। তার পরিচালিত আবহানী ক্লাবেও পাওয়া যায় জুয়ার সরঞ্জাম। এরপর অভিযান নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ার পরই বিতর্কের মুখে পড়েন পটিয়া থেকে নির্বাচিত এ সাংসদ। বেরিয়ে আসে হুইপের অতীত ইতিহাস। আওয়ামী লীগ নেতারা তাকে দলে অনুপ্রেবশকারী হিসেবে বলছেন।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক দিদারুল আলম বলেন, সামশুল হক প্রথমে যুবদলের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিল। এরপর জাতীয় পার্টির রাজনীতি করেছে। এরশাদের পতনের পরে আওয়ামী লীগ নেতাদের সরলতার সুযোগ নিয়ে আওয়ামী লীগে ভিড়েছে।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান আরটিভি অনলাইনকে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছেন তার বিরুদ্ধে যারা কথা বলবে, যারা এই অভিযানকে প্রশ্নবিদ্ধ করবে; তাদেরকে দল থেকে বের করে দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রস্তাব পাঠানো হবে।

তিনি আরো বলেন, কিছু সংখ্যক লোক বিশেষ করে যারা দলে অনুপ্রবেশকারী তারা এ শুদ্ধি অভিযানকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছে। যারা ছাত্রলীগ যুবলীগ করেনি, উড়ে এসে জুড়ে বসেছে তাদের বিরুদ্ধে আমাদের বক্তব্য পরিষ্কার।

এ সময় তিনি হুইপ সামশুল হকের দেয়া বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ করেন। 

তবে এ সব বিষয়কে ষড়যন্ত্র বলে দাবি করছেন হুইপ সাংবাদিকদের বলেন, জাতীয় পার্টি, বিএনপি কতকিছু বানানো হচ্ছে। জামায়াত বানানো বাকি আছে। আমি শেখ হাসিনার প্রোডাক্ট। প্রধানমন্ত্রী আমাকে যাচাই-বাছাই করে তিনবার মনোনয়ন দিয়েছেন। আমি পাশ করেছি।

জুয়া নিয়ে হুইপ সামশুল হকের ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ার পরদিন নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন এক অনুষ্ঠানে বলেন, ক্লাব পরিচালনার দোহাই দিয়ে জুয়া জায়েজ করার কোনো সুযোগ নেই।

এরপর বুধবার নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহাতাব উদ্দিন চৌধুরী ও আ জ ম নাছির উদ্দীন এক বিবৃতিতে বলেন, চলমান অভিযানের বিরোধিতাকারীরা গণদুশমন।

পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়