Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

খুলনা যুবদলে বিশৃঙ্খলা, নতুন কমিটির দাবি

জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির সহযোগী সংগঠন যুবদলের খুলনা জেলার মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির সভাপতি এস এম শামীর কবির পদত্যাগ করেছেন। মঙ্গলবার (০৭ সেপ্টেম্বর) তিনি কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সম্পাদক বরাবর অব্যহতিপত্র জমা দেন। শামীর কবিরের পদত্যাগের ফলে তৃণমূলে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে। কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় নতুন কমিটির দাবি করছেন তারা।

বর্তমানে যুবদলকে শক্তিশালী করতে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ১২টি বিভাগীয় টিম গঠন করা হয়। কিন্তু বিপত্তি বাধে খুলনা বিভাগীয় টিমে। এই টিমের অন্যতম সদস্য বিভাগীয় সহ-সভাপতি ও খুলনা মহানগর যুবদলের সভাপতি মাহবুব হাসান পিয়ারু এবং অপর সদস্য খুলনা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও খুলনা জেলা যুবদলের সভাপতি শামীম কবিরের পদ বাণিজ্য ও অনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ে বলে অভিযোগ স্থানীয় নেতাকর্মীদের।

স্থানীয় নেতাকর্মীরা জানান, এই দুই নেতার অনৈতিক কর্মকাণ্ড নিয়ে বিভিন্ন মাধ্যমে বারবার কেন্দ্রীয় যুবদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে জানানোর চেষ্টা করেন তারা। কিন্তু খুলনার প্রভাবশালী এক নেতার হস্তক্ষেপে কেন্দ্রীয় যুবদলের সভাপতি বিষয়টি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের কাছে গোপন রাখেন বা এড়িয়ে যান।

স্থানীয় একাধিক কর্মীর ভাষ্য, টাকার বিনিময়ে পদ দিতে না পারায় অর্থ প্রদানকারী পদ প্রত্যাসীদের চাপে পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ২৭ এপ্রিল কেন্দ্রীয় যুবদলের সভাপতি ও উত্তরার মনোনীত যুবদলের প্রভাবশালী অপর এক নেতার চেষ্টায় বির্তকিতদের দিয়ে খুলনা মহানগর ও জেলা যুবদলের ৫ সদস্য বিশিষ্ট আংশিক কমিটি গঠন করা হয়। যেখানে মাদক মামলার সাজাপ্রাপ্ত ও একাধিক মাদক মামলার আসামি আব্দুল্লাহ হেল কাফি সখাকে সিনিয়র সহ-সভাপতি করা হয়। মহানগর যুবদলে রাজশাহী জেলার একজন বৈবাহিক সূত্রে খুলনার নিবাসীকে সভাপতি করে এবং নাজমুল হুদা সাগরকে সাধারণ সম্পাদক করে।

শুরু থেকে বিভিন্ন সমালোচনার মুখে পড়ে এবং জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ইবাদুল হক রুবায়েত পরিবার নিয়ে নিয়মিত ঢাকায় অবস্থান করায় সংগঠন গতিহীন হয়ে পড়ে। কেন্দ্রীয় কর্মসূচি থাকলে তাকে মাঝে মাঝে খুলনায় দেখা যায়।

অন্যদিকে সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল্লাহ হেল সখা একাধিক মাদক মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় পালিয়ে থাকেন। এছাড়াও সাধারণ সম্পাদক রুবায়েত নিয়মিত মদের আড্ডায় যেয়ে থাকেন যা বিভিন্ন সময়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল।

তৃণমূলের একাধিক নেতাকর্মীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, জেলা ও মহানগর যুবদলের কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ার পরেও তারা ইউনিট এবং ওয়ার্ড কমিটি গঠন করতে পারেননি। যোগ্য ও আন্দোলন সংগ্রামে অবদান রাখা নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে অর্থের বিনিময়ে কমিটি গঠন করার অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে।

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS