Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৫ আশ্বিন ১৪২৮

যেভাবে খালেদা জিয়ার কাছাকাছি এসেছিলেন হেলেনা

যেভাবে খালেদা জিয়ার কাছাকাছি এসেছিলেন হেলেনা

হেলেনা জাহাঙ্গীর একজন ব্যবসায়ী ও শিল্পোদ্যোক্তা হিসেবে এগিয়ে চলছেন। সফল ব্যবসায়ী হিসেবেও পরিচিতি পেয়েছেন। কিন্তু তার রাজনৈতিক অঙ্গনে পদচারণার আগ্রহে কখনও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদ ও বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতাদের সঙ্গে ছবি তুলেছেন।

হেলেনা জাহাঙ্গীর সম্প্রতি আওয়ামী ‘চাকরিজীবী লীগ’ নামে একটি সংগঠন করতে গিয়ে বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য পদ হারান। এরপর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে শুরু করে বিভিন্ন অনলাইন গণমাধ্যমে হেলেনা জাহাঙ্গীরের সঙ্গে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ছবি প্রকাশ পায়। ছবিটি ভাইরাল হলে নজরে আসে বিএনপি নেতাদের। এতে কিছুটা বেকায়দায় পড়েন বিএনপির অঙ্গসংগঠন মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ।

জানা গেছে, ২০১৭ সালে রাজধানীর হোটেল রেডিসনে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে হেলেনা জাহাঙ্গীরের ছবিটি বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদের মেয়ের বিয়ের রিসেপশনে তোলা হয়।

সুলতানা আহমেদ বলেন, আমি আগে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে চিনতাম না। তিনি কখনও মহিলা দলও করেননি। শুধু তাই নয়, বিএনপির কোনো অঙ্গ-সংগঠনেও যুক্ত ছিলেন না হেলেনা জাহাঙ্গীর। তার সঙ্গে আমার কোনো যোগাযোগ নেই।

তিনি বলেন, কিছুদিন আগে নায়িকা পরীমণিকাণ্ডে জাতীয় পার্টির নেতা নাসির উদ্দিন মাহমুদ আটকের পর ইউটিউবে হেলেনা জাহাঙ্গীরের একটি বক্তব্য চোখে পড়ে। তখন থেকে মূলত আমি তাকে চিনি।

খালেদা জিয়ার সঙ্গে হেলেনা জাহাঙ্গীরের ছবিটি ছড়িয়ে পরার বিষয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান গণমাধ্যমকে বলেন, হেলেনা জাহাঙ্গীর সঙ্গে বিএনপির সম্পর্ক নেই। ছবিটি একটি বিয়ে অনুষ্ঠানে তোলা। তবে সেই বিয়ে অনুষ্ঠানে তাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি।

ছড়িয়ে পড়া ছবিতে খালেদা জিয়া ও হেলেনা জাহাঙ্গীর ছাড়াও মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ এবং বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলুর স্ত্রী শামীমা বরকত লাকীকে দেখা যায়।

কয়েকদিন আগে হেলেনা জাহাঙ্গীরও খালেদা জিয়ার সঙ্গে তোলা ছবিটি নিজের ফেসবুকে পোস্ট করে লিখেন, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সাথে কি আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ছবি নেই? তাতে কি কিছু বোঝা যায়? আমরা কি অশিক্ষিত যারা এই ভুলগুলো করছি। সবাইকে জানানোর জন্যেই বলছি, আমি আমার নেতা ও নেত্রীর কথার বাইরে এক পাও আগাইনা, কাজও করি না। ওনাদের পরামর্শ নিয়েই সব কাজ করি। যারা আমাকে নিয়ে লিখেছেন তারা আমাদের আওয়ামী লীগের। আমার বোধগম্য হয় না কীভাবে তারা ঘরের মানুষের পেছনে লেগে থাকে। যাই হোক আল্লাহ হেদায়েত করুন।

তিনি আরও লিখেন, আবারও বলছি এর আগেও বলেছি খালেদা জিয়া ও অন্যান্যদের সাথে যে ছবিগুলো ভাইরাল হচ্ছে সেটা বিয়েতে এসেছিল তখন তোলা। এ ছবিগুলো আমি নিজেই ফেসবুকে দিয়েছিলাম। আমার কিছুতে গোপনীয়তা নেই। আর আমি একজন প্রকৃত ১০০% ব্যবসায়ী ও সরকারের একজন কমার্শিয়াল ইম্পরট্যান্ট পারসন (সিআইপি)... সেখান থেকে রাজনীতিতে এসেছি। বঙ্গবন্ধুর সৈনিক ছোট বেলা থেকেই।

পরবর্তীতে হেলানা জাহাঙ্গীর তার ফেসবুক থেকে পোস্টটি সরিয়ে ফেলেন।

এফএ

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS