smc
logo
  • ঢাকা শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ১৬ কার্তিক ১৪২৭

পাবনা-৪ আসনের উপ-নির্বাচনে মাঠে প্রার্থীরা (ভিডিও)

  পাবনা প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

|  ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২৩:০৬ | আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০৪
Candidates in the field in the by-election of Pabna-4 constituency
উপ-নির্বাচনে মাঠে প্রার্থীরা
আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে পাবনা-৪ আসনের উপ-নির্বাচন। দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে আসনটি হাত ছাড়া বিএনপির। এবার এটি পুনরুদ্ধারের লড়াইয়ে নেমেছে দলটি। আর বরাবরের মতো আসনটি নিজেদের দখলে রাখতে একজোট আওয়ামী লীগ। নির্বাচনী মাঠে রয়েছে জাতীয় পার্টির প্রার্থীও। এদিকে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনের কথা জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন। 

পাবনার ঈশ্বরদী ও আটঘরিয়া উপজেলা নিয়ে গঠিত পাবনা-৪ সংসদীয় আসন। এ আসনে মোট ভোটার তিন লাখ ৮১ হাজার ১১২ জন। ভোট কেন্দ্র ১২৯টি। ১৯৯৬ সাল থেকে টানা ২৫ বছর আসনটি রয়েছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের দখলে।

এবার আসনটি পুনরুদ্ধারে ভোটারদের মন জয় করতে প্রচারণায় ব্যস্ত বিএনপি প্রার্থী। আর আওয়ামী লীগ প্রার্থী বললেন, নির্বাচনে ভোটাররাই তাদের পছন্দের প্রার্থী নির্বাচিত করবেন। জাতীয় পার্টির প্রার্থী থাকলেও মাঠে দেখা মিলছে না খুব একটা। তবে ভোটাররা চান শান্তিপূর্ণ পরিবেশ। 

ভোটাররা বলেন, মাদক বিরোধী অভিযান যে বেশি চালাতে পারবে তাকে আমরা তাকে ভোট দিব। যে বেশি উন্নয়ন করবে এমন লোকে আমরা দেখতে চাই। আমরা নেজের ভোট নিজে দিব।

বিএনপি মনোনীত প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, জনগণ যদি আমাকে নির্বাচিত না করে আমার কোনও আপত্তি নেই। কিন্তু ভোট টা দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। আমি মনে করি, জনগণ ভোট দেওয়ার সুযোগ পেলে আমি জয় লাভ করব।

আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী আলহাজ নুরুজ্জামান বিশ্বাস বলেন, আমি সাধারণ মানুষকে নিয়ে রাজনীতি করি। আমার প্রত্যাশা সাধারণ মানুষ নৌকায় ভোট দিবে।

আওয়ামী লীগ নেতারা জানান, ক্ষমতা দখলে বিশ্বাসী নয় বরং ভোটের রাজনীতিতে বিশ্বাসী আওয়ামী লীগ। 

পাবনা জেলা আ’লীগর  সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক প্রিন্স বলেন, আমি অনেক খুশি যে বিএনপি ভোটে অংশগ্রহণ করেছে। আমি মনে করি অবশ্যই এটা একটা অংশগ্রহণ মূলক নির্বাচন হবে।

পাবনা জেলা আ’লীগর উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার সৈয়দ আলী জিরু বলেন, বাংলাদেশের ভোট হচ্ছে একটা উৎসব। সেই উৎসবের পরিবেশটা যদি দুই দলের দুই প্রার্থী নিশ্চিত করতে পারে। তাহলে আমি বিশ্বাস করি ভোটাররা ভোট দিতে আসবে।

নির্বাচন যেন সুষ্ঠু হয়, ভোটাররা যেন ভোট দিতে আসে এবং  সকলের কাছে গ্রহণ যোগ্য হয় এটাই মূল উদ্দেশ্য। আর ভোটারদের আস্থা অর্জনে নানা ব্যবস্থা নেয়ার হচ্ছে বলে জানান, সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুল লতিফ শেখ।

উল্লেখ্য, গত ২ এপ্রিল সাবেক ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়। 

এসএ/জিএ 

RTVPLUS
bangal
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ৪০৭৬৮৪ ৩২৪১৪৫ ৫৯২৩
বিশ্ব ৪,৫৯,৯৫,৬২৬ ৩,৩২,৯০,৯৫৯ ১১,৯৫,০৬৩
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • রাজনীতি এর সর্বশেষ
  • রাজনীতি এর পাঠক প্রিয়