logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

আবরার হত্যার ঘটনায় বুয়েটের ২৬ শিক্ষার্থী আজীবন বহিষ্কার

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২২ নভেম্বর ২০১৯, ০৮:৪২ | আপডেট : ২২ নভেম্বর ২০১৯, ০৮:৫১
আবরার হত্যার ঘটনায় বুয়েটের ২৬ শিক্ষার্থী আজীবন বহিষ্কার
ফাইল ছবি
বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় ২৬ শিক্ষার্থীকে আজীবন বহিষ্কার করেছে বুয়েট কর্তৃপক্ষ। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা ভঙ্গ করায় আরও ছয়জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে বুয়েটের ছাত্রকল্যাণ পরিদপ্তরের পরিচালক ও বোর্ড অব রেসিডেন্স অ্যান্ড ডিসিপ্লিনের সদস্যসচিব অধ্যাপক মিজানুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে৷

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটির রিপোর্টের ভিত্তিতে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) বোর্ড অব রেসিডেন্স অ্যান্ড ডিসিপ্লিন ওই ঘটনায় অভিযুক্ত ২৬ জনকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবনের জন্য (স্থায়ীভাবে) বহিষ্কার করেছে, যাদের মধ্যে ২৫জন পুলিশের অভিযোগপত্র অনুযায়ী অভিযুক্ত। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলাভঙ্গের কারণে আরও ছয়জন বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেয়া হয়।

আজীবন বহিষ্কৃত ২৬ শিক্ষার্থীদের নাম:

মেহেদী হাসান রবিন (কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৫তম ব্যাচ), মো. অনীক সরকার (১৫তম ব্যাচ), ইফতি মোশাররফ সকাল (বায়োমেডিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৬তম ব্যাচ), মো. মনিরুজ্জামান মনির (পানিসম্পদ, ১৬তম ব্যাচ), মো. মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন (মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৫তম ব্যাচ), মো. মোজাহিদুর রহমান (ইইই, ১৬তম ব্যাচ), মেহেদী হাসান রাসেল (কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৩তম ব্যাচ), এহতেশামুল রাব্বী (তানীম) (সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৭তম ব্যাচ), খন্দকার তাবাককারুল ইসলাম (তানভীর) (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৬তম ব্যাচ), মনতাসির আল জেমি (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, বিভাগ, ১৭ তম ব্যাচ), এ এস এম নাজমুস সাদাত (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৭তম ব্যাচ), মো. শামীম বিল্লাহ (মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৭তম ব্যাচ), মোর্শেদ অমর্ত ইসলাম (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৭তম ব্যাচ), হোসাইন মোহাম্মদ তোহা (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৭তম ব্যাচ), মুজতবা রাফিদ (১৬তম ব্যাচ), মো. মিজানুর রহমান (১৬তম ব্যাচ), মো. আশিকুল ইসলাম (১৬তম), এস এম মাহমুদ (১৪তম ব্যাচ), ইশতিয়াক অহমেদ (মুন্না) (১৫তম ব্যাচ), অমিত সাহা (১৬তম ব্যাচ), মাজেদুর রহমান (এমএমই বিভাগ, ১৭তম ব্যাচ), মো. শামসুল আরেফিন (১৭ তম ব্যাচ), মোয়াজ আবু হোরায়রা (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৭তম ব্যাচ), মো. আকাশ হোসেন (সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৬তম ব্যাচ), মো. মোর্শেদ-উজ-জামান মন্ডল (১৬তম), মুহতাসিম ফুয়াদ (সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৪তম ব্যাচ)।

 শাস্তিপ্রাপ্ত অন্যান্য ছয় শিক্ষার্থীর নাম:

আবু নওশাদ সাকিব (১৭ তম ব্যাচ), মো. সাইফুল ইসলাম (১৭ তম ব্যাচ), মো. গালীব (১৭ তম ব্যাচ), মো. শাওন মিয়া (১৭ তম ব্যাচ), সাখাওয়াত ইকবাল অভি (১৭তম ব্যাচ) মো. ইসমাইল (১৬ ব্যাচ)।

এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • শিক্ষা এর সর্বশেষ
  • শিক্ষা এর পাঠক প্রিয়