logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

করোনা আপডেট

  •     গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২১ জন, আক্রান্ত ১ হাজার ১৬৬ জন ও সুস্থ হয়েছেন ২৪৫ জন: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

লকডাউনে বৈশাখ বরণে ভিন্নতা, ঘরেই কাটুক সারাদিন

লাইফস্টাইল ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৪ এপ্রিল ২০২০, ১১:১৬ | আপডেট : ১৪ এপ্রিল ২০২০, ১১:৩০
লকডাউনে বৈশাখ বরণে ভিন্নতা, ঘরেই কাটুক সারাদিন
ছবি: সংগৃহীত
বর্ষবরণের প্রস্তুতি নেই, নেই মঙ্গল শোভাযাত্রার তাড়া। তবু সময়ের নিয়মে দিন যায়, দিন আসে। বছর ঘুরে এসেছে আবারও বাংলা নববর্ষ। উৎসবের এই দিনটি ঘরেই কাটাতে হবে নিজের ও পরিবারের সবার সুস্থতার জন্য। যদিও এখন বিমর্ষ সময়, উৎসব করার নয়। তাই বলে কি বছর শুরুর দিনটিও মন খারাপ করে বসে থাকবেন? ঘরেই বিভিন্ন আয়োজন করে এবারের পহেলা বৈশাখ সুন্দরভাবে কাটিয়ে দেবার জন্য মনস্থির করে ফেলেন।

এবার জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বেরোতে মানা। তাই ঘরে বসে পরিবারের সঙ্গে পালন করা যেতে পারে পহেলা বৈশাখ।

বড়দের সময় দিন

প্রতি পহেলা বৈশাখের দিনে তো সবাই কমবেশি বাইরে গিয়ে সময় কাটায়, এবার না হয় সেই সময়টুকু কাটুক পরিবারের সঙ্গে। বড় ও ছোটদের সঙ্গে গল্প করে কিংবা খুনসুটি করে দিব্যি কেটে যেতে পারে আনন্দের এই উৎসবটি।

পুরনো পোশাকটিই গায়ে জড়িয়ে রাখুন

এবার তো পহেলা বৈশাখের বাজারেও ধ্বস নেমেছে। কোথাও কোনো ক্রেতা নেই, এমনকি বেশিরভাগ মার্কেট ও দোকানগুলোও বন্ধ। কেউই এবার বৈশাখের জন্য কেনাকাটা করতে পারেনি। তাই বলে কি লাল-সাদা পোশাকে বৈশাখ বরণ করা হবে না। গত বছরের পোশাকটি তো রয়েছেই! সেটিই না হয় গায়ে তুলে নিন।

সকালেই ঘর সাজিয়ে নিন

ঘরটি পছন্দ অনুযায়ী সকাল বেলাতেই সাজিয়ে নিন। এতে করে বাড়িতে উৎসবের আমেজ আসবে। বিছানার চাদর পাল্টে নিন সঙ্গে পর্দাও বদল করুন। এতে করে ঘরে স্বস্তির ভাব আসবে।

পরিবারের জন্য সাজুন

দীর্ঘদিন ঘরে থাকায় অনেকেই সাজসজ্জা প্রায় ভুলতেই বসেছেন! তাই বলে পহেলা বৈশাখে না সাজলে কি হয়? পছন্দের পোশাকটি পরে সেজে পরিবারের সবার সঙ্গে সময় কাটান। তারপর সবাই মিলে সারাদিন আড্ডা দিন, ছবি তুলুন কিংবা গল্প করুন। চাইলে সবাই মিলে পছন্দের সিনেমাও দেখতে পারেন। বিকেলে ছাদে উঠে চাইলে পিকনিকও করতে পারেন।

উৎসবে আনন্দে কাটান সময়

পহেলা বৈশাখের সকাল। বাইরে বের হবার উপায় নাই তো কী? বাসায় সবাই মিলে লাল-সাদা জামাকাপড় পরা যেতে পারে। পান্তা আর ইলিশ খাওয়া, গল্প আর আড্ডায় সকালটা এভাবেই পার হয়ে যাবে। বৈশাখে শহরকেন্দ্রিক মোটামুটি সবাই প্রিয়জন বা বন্ধুদের সঙ্গে সকাল সকাল বের হয়; কিন্তু এবার বের হওয়া যাবে না। কোনো সমস্যা নেই, গ্রুপ ভিডিও কলে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিন। 

কে কিভাবে সেজেছ, কী পরেছ, কী করবে সারা দিন বন্ধুদের শেয়ার করুন। আলপনা আঁকা কারো কারো শখ। তারা ঘরে আলপনা আঁকতে পারেন। রঙিন মুখোশ বানানোর চেষ্ঠা করতে পারেন। নিজেদের বাড়িটাকে খুব সুন্দর করে সাজাতে পারেন। গান গাইবার চর্চা থাকলে পরিবারের সবাই মিলে বৈশাখের গানগুলো একসঙ্গে সুর তুলতে পারেন। বাড়ির শিশুদের জন্য সময় দিন। তাদের নিয়ে আনন্দে মেতে উঠুন উৎসবের সাজে।

খাবারে আনুন দেশী আমেজ

দেশীয় খাবার রান্না পারেন ঘরের কমবেশি সবাই। পহেলা বৈশাখের দিনে খাবারে অদলবদল না এলে কি চলে! খাবারের মেন্যুতে আনতে পারেন বৈশাখের আমেজ। সকালে তো পান্তা ভাত আর ইলিশ মাছ, সারাদিন বাহারি মিষ্টির পদ থেকে শুরু করে খিচুড়ির সঙ্গে ভর্তা কিংবা পোলাও-কাচ্চি সবই চলে। পরিবারের সবার সঙ্গে মিলে রান্না করুন বাহারি পদ। এরপর সবাই মিলে বসে আনন্দের সঙ্গে খাবার খেয়ে দেখুন কতটা প্রশান্তি মিলবে!

আত্মীয়দের সময় দিন অনলাইনে

পরিবারের অন্যান্য আত্মীয়স্বজন বা বন্ধু-বান্ধব যারা দূরে আছেন, তাদেরকেও নববর্ষের শুভেচ্ছা জানান। ফোনে কথা বলুন কিংবা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ভিডিও কলের মাধ্যমে যোগাযোগ করুন। দেখবেন মন ফুরফুরে হয়ে গেছে! বাড়িতেই ভিন্ন এক বৈশাখ কীভাবে কাটালেন, সারা দিন কী কী করলেন? কী বানালেন? তার ছবি তুলে রাখেন শখের স্মার্টফোনটিতে। দিনশেষে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম বা ইনস্টাগ্রামে আপলোড দিন। বাসায় গানের আসরের ভিডিও বানিয়ে আপলোড করা যেতে পারে। রান্না, ঘর সাজানোর জিনিস বা আলপনা আঁকা যেকোনও জিনিসের ভিডিও করেও দিতে পারেন। যেন বাকিরা কিছু আইডিয়া পেতে পারে।

নামাজ পড়ুন

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করলে মন শান্ত থাকে। এজন্য কাজের ফাঁকে নিয়মিত প্রার্থনা করুন। 

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস এর কারণে এই দুঃসময়ে আমাদের সবাইকে ধৈর্য ধরতে হবে এবং সচেতন হতে হবে। 

এস
 

RTVPLUS

সংশ্লিষ্ট সংবাদ : করোনাভাইরাস

আরও
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৩৬৭৫১ ৭৫৭৯ ৫২২
বিশ্ব ৫৫৮৯৭১২ ২৩৬৬৫৫১ ৩৪৭৯০৩
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • লাইফস্টাইল এর সর্বশেষ
  • লাইফস্টাইল এর পাঠক প্রিয়