logo
  • ঢাকা শনিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬

কর্মক্ষেত্রে মানসিক চাপ কমাতে যা করবেন

লাইফস্টাইল ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩:৫৫ | আপডেট : ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫:৪২
কর্মক্ষেত্রে মানসিক চাপ কমাতে যা করবেন
কাজের জায়গায় নিজের ডেস্কে যদি এক কোনে সবুজের ছোঁয়া থাকে, তবে পরিবেশ একটু হলেও বদলাবে। ঘরের কোনায় বা অফিসের কাজের ডেস্কে একটি ছোট গাছের টব ঘরের শোভা বাড়ায়

দিনের একটা সময়ে কাজ করতে করতে আর ভালো লাগে না, এমন হয়েছে কি আপনার?  অথবা একটু কাজ করেই আর মনোযোগী হতে পারছেন না? অথবা অফিসের ডেস্কে একঘেয়ে কাজ করতে করতে কাজের ওপর বিরক্তি ধরে গেছে? প্রতিদিনই কাজের একটা পর্যায়ে চোখ জ্বালাপোড়া, মাথা ধরা– এই ধরনের সমস্যা হয়?

এসব সমস্যার একটা খুব সহজ সমাধান হতে পারে অফিসের ডেস্কে ছোট্ট একটি গাছ। এখন অনেক সিনেমাতেও দেখা যায় অফিসের টেবিলের এক কোণায় ছোট একটি সবুজ। অনেক প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকেই কর্মীদের টেবিলে গাছ দেয়া হয়।  ছোট্ট একটি গাছ কাজের সময়ে ক্লান্তি দূর করা, মনোযোগ বৃদ্ধি করা ও কাজের মান বাড়িয়ে দিতে পারে। আর  জানেন তো গাছের সবুজ রঙ চোখের পক্ষে বেশ উপকারী। 

সাম্প্রতিক এক গবেষণা বলছে, কাজের জায়গায় নিজের ডেস্কে যদি এক কোনে সবুজের ছোঁয়া থাকে, তবে পরিবেশ একটু হলেও বদলাবে। ঘরের কোনায় বা অফিসের কাজের ডেস্কে একটি ছোট গাছের টব ঘরের শোভা বাড়ায়।

কাজের চাপ, সংসারের প্রয়োজন মেটানো ও পারিপার্শ্বিক আরও নানা ধরনের সমস্যায় অনেক চাকরিজীবীই মানসিক চাপে থাকেন। তবে অফিস ডেস্কে রাখা সবুজ গাছ এসব চাপ থেকে কিছুটা হলেই মুক্তি দিতে পারে  বলে জানিয়েছে গবেষকরা।  

উদ্বেগজনিত সমস্যায় কর্মক্ষেত্রে গাছ রাখার পরামর্শ দিয়েছেন গবেষকরা। জাপানের হিয়োগো বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক দলে সমীক্ষায় বলা হয়, অফিস কর্মীদের মানসিক স্বাস্থ্য অনেকটাই ভালো থাকে যদি অফিসে ‘ইনডোর প্ল্যান্ট’ থাকে।

বিশেষ করে যারা নিয়মিত কর্মক্ষেত্রজনিত উদ্বেগ, চাপ, স্ট্রেস ইত্যাদি সমস্যায় ভোগেন, তারা সমস্যা থেকে বাঁচতে নিজেদের ডেস্কে সবুজ গাছ রাখলে ভালো ফল পাবেন। হার্ট টেকনোলজি জার্নালে প্রকাশিত ওই সমীক্ষায় জাপানের ৬৩টি অফিসের কর্মীরা অংশ নিয়েছিলেন। অফিস ডেস্কে গাছ রাখার আগে এবং পরে তাদের মানসিক অবস্থা খতিয়ে দেখা হয়েছিল। 

হার্ট টেকনোলজি জার্নালে প্রকাশিত ওই সমীক্ষায় জা'পানের ৬৩টি অফিসের কর্মীরা অংশ নিয়েছিলেন।

কাজের ফাঁকে ফাঁকে ৩ মিনিট বিরতি নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল কর্মীদের। প্রথম বার ডেস্কে গাছ না থাকা অবস্থায়, পরের বার গাছ রাখার পর। সমীক্ষায় দেখা গেছে, কাজের মাঝে ছোট ছোট সবুজ চারার দিকে কয়েক মিনিট তাকিয়ে থাকলেও চাপ অনেকটা কমে, সবুজ হয়ে ওঠে মন। 

গুগল, মাইক্রোসফট সহ অনেক বড় বড় কোম্পানি তাদের ওয়ার্ক প্লেসকে প্রাকৃতিক চেহারা দেয়ার চেষ্টা করছে।  মাইক্রোসফট তো তাদের ক্রিয়েটিভ ও রিসার্চ টিমের জন্য জঙ্গলের মধ্যে কটেজ ও ট্রি হাউজ বানিয়ে – সেটাকে অফিস বলে ঘোষণা করেছে। 

২০১১ সালে আমেরিকান ন্যাশনাল সেন্টার ফর বায়োটেকনোলজি ইনফরমেশন (NCBI) এর একটি গবেষণাপত্র প্রকাশ হয়।  বেশ কয়েকজন বিশ্বসেরা বিজ্ঞানী সেই গবেষণায় অংশ নেন।

গবেষণায় মূলকথা ছিল, কর্মক্ষেত্রে সামান্য একটু প্রাকৃতিক ছোঁয়া কর্মীদের কাজে আগ্রহ, এনার্জি বাড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে মানসিক চাপ কমায়। এনসিবিআই এর গবেষণা ছাড়াও, কর্মক্ষেত্রে প্রাকৃতিক পরিবেশের উপকারিতা নিয়ে আরও অনেক গবেষণা হয়েছে। সূত্র: হার্ট টেকনোলজি, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

এস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • লাইফস্টাইল এর সর্বশেষ
  • লাইফস্টাইল এর পাঠক প্রিয়