• ঢাকা শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
logo

এসি কেনার আগে যে বিষয়গুলো খতিয়ে দেখবেন

লাইফস্টাইল ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ০৪ মে ২০২৪, ১১:১৬
এসি
ছবি : সংগৃহীত

এই গ্রীষ্মের তাপদাহে ঘরে বাহিরে কোথাও যেন স্বস্তি খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এ পরিস্থিতে অনেকেই দ্বারস্থ হচ্ছেন এসির দোকানে। কিন্তু এসি কেনার আগে এই বিষয়গুলো খতিয়ে দেখে নিন, তা নাহলে কিন্তু ঠান্ডা হাওয়ার সঙ্গে বিদ্যুৎ বিলটাও বাড়িয়ে দেবে বহুগুণে।

জেনে নিন বিষয়গুলো-

এসিতে দুই ধরনের কয়েল ব্যবহার করা হয়, তামার কয়েল বা অ্যালুমিনিয়াম কয়েল। বিশেষজ্ঞদের মতে, তামার কয়েলের এসি কেনাই বুদ্ধিমানের। তামার কয়েলে তাড়াতাড়ি ঠান্ডা হয়, এই কয়েলের সেরকম রক্ষণাবেক্ষণেরও প্রয়োজন হয় না।

কী ধরনের এসি কিনবেন, তা নির্ভর করছে ঘর কত বড় তার ওপর। ১৪০ থেকে ১৫০ বর্গফুটের ঘরে এক টন ওজনের এসি যথেষ্ট।

এসি কত টনের, সেই হিসাব সাধারণত করা হয় এক টন বরফ গলাতে ২৪ ঘণ্টায় কতটা তাপমাত্রা প্রয়োজন তার ভিত্তিতে। সাধারণত ১৮০ বর্গফুটের ঘরে অন্তত দেড় টনের এসি প্রয়োজন।

এসি কেনার আগে দেখে নিন, এসিতে থার্মোস্ট্যাট এবং একাধিক ব্লোয়ার আছে কি না। এসির ফ্যানের দ্রুততা কমানো- বাড়ানো যায়। বিদ্যুতের খরচও বাঁচানো যায়।

ইনভার্টার এসি অনেক বেশি সাশ্রয়ী। এতে এক দিকে যেমন বিদ্যুৎ খরচ কম হয়, তেমনই এসি ভালোও থাকে বেশিদিন।

ঘরে যদি বেশি রোদ আসে বা ঘর যদি হয় বহুতলের ওপরের দিক থেকে পাঁচ তলার মধ্যে, তবে ঘরের আয়তন অনুযায়ী যত টনের এসি দরকার, তার থেকে ০.৫ টন বাড়িয়ে নিন

মন্তব্য করুন

daraz
  • লাইফস্টাইল এর পাঠক প্রিয়
আরও পড়ুন
এসিআই ওষুধ কোম্পানির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী
শিশু আয়মানের পর চলে গেলেন খালাও
নিয়োগ দেবে এসিআই মটরস, আবেদন অনলাইনে
বাড়তে যাচ্ছে আমদানিকৃত এসি ও ফ্রিজের দাম