logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২ ফাল্গুন ১৪২৭

মাত্র ৫টি পানীয়তে কমবে অতিরিক্ত ওজন

ফাইল ছবি

আধুনিক এই যুগে তরুণ থেকে বৃদ্ধ পর্যন্ত সকলেই নিজেকে সদ্য বিশ বয়সী যুবক বা তরুণীর মতো দেখাতে চান। কিন্তু অনাকাঙ্ক্ষিত বেড়ে যাওয়া ওজনের জন্য তা সম্ভব হয় না। নানা চেষ্টা করার পরও সম্ভব হয়ে ওঠে না ওজন কমানো। ব্যায়ামেও কোনও ফল আসে না। তবে ঘরোয়া উপায়ে এর সমাধান রয়েছে।

অতিরিক্ত স্বাস্থ্য কমানোর জন্য ঘরোয়া কিছু কৌশল রয়েছে। কৌশল বলতে কিছু ড্রিংকস রয়েছে যা নিয়মিত পানের ফলে সহজেই স্বাস্থ্য কমবে। ডিটক্স ড্রিংকস শরীর থেকে টক্সিন বের করতে সহায়তা করে এবং মেটাবলিজম সঠিক রাখে। এসব ড্রিংকসে একটু ডায়েট মেনে চললেই নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে ওজন।

১. ধনে হজমে সহায়তা করে। ফাইবার সমৃদ্ধ এই ধনেতে ভিটামিন, খনিজ, পটাশিয়াম, আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ও ফলিক এসিড রয়েছে। ধনের পানীয় পানের ফলে উপকার রয়েছে। পানি গরম করে তাতে ১ চা চামচ ধনের বীজ মেশান। এবার সেদ্ধ করে ঠাণ্ডা করার পর সারারাত রেখে দিন। পরদিন সকালে ছেঁকে নিয়ে পান করুন।

২. জিরা মসলাটি ক্যালোরি ঝরাতে খুব কার্যকর। প্রাকৃতিক এই উপাদানটি মেটাবলিজমের হার বৃদ্ধি করে শরীরের ফ্যাট কমায়। পানিতে ভিজিয়ে রেখে সেদ্ধ করুন। তারপর ছেঁকে নিয়ে উষ্ণ গরম অবস্থায় পান করুন। তবে রোজ সকালে খালিপেটে খাওয়ার উপকার বেশি।

৩. মধু স্বাস্থ্য কমাতেও কাজ করে। রাতে ঘুমানোর আগে মধু খেলে ক্যালোরি ঝরে। এছাড়া দারুচিনিতেও ফ্যাট কমে। এসব উপাদানে শরীরের মেদ ঝরানো ছাড়াও অন্যান্য উপকারিতা রয়েছে। এ জন্য প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে মধু ও দারুচিনি মিশ্রিত পানি পান করবেন।

৪. স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রণে আনতে মেথির বীজের বিকল্প কিছু নেই। এই বীজে প্রচুর পরিমাণ পুষ্টিগুণ রয়েছে। সারারাত পানিতে ভিজিয়ে রেখে সকালে ছেঁকে খালিপেটে খাওয়ার ফলে কয়েক দিন পর নিজেই ফলাফল দেখতে পাবেন।

৫. লেবু এবং আদার পানীয়ও বেশ ফল দেয় স্বাস্থ্য কমাতে। এজন্য এক গ্লাস পানি হালকা গরম করে নিয়ে অর্ধেক লেবু কুঁচি এবং একটু আদা গ্রেটেড করে যোগ করুন তাতে। প্রতিদিন সকালে এভাবে ১ থেকে ২ মাস পান করার ফলে ওজন কমে আসবে।

সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

এসআর/

RTV Drama
RTVPLUS