logo
  • ঢাকা রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭

শীতে ত্বককে সুস্থ ও উজ্জ্বল রাখবেন কিভাবে

ছবি: সংগৃহীত

বছর ঘুরে আবারও শীতের আগমন। শীতকাল সবারই পছন্দের ঋতু। সবার পছন্দের হওয়ার পরও শীত কিন্তু ত্বককে শুষ্ক ও রুক্ষ করে তোলে। এই সময় ঠোঁট ফেটে যায়। অনেকের রক্তও বের হয়। ত্বককে সুন্দর ও উজ্জ্বল রাখার জন্য অতিরিক্ত সূর্যরশ্নি এড়িয়ে চলতে হবে। ত্বককে সুস্থ ও সতেজ রাখার জন্য বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করা যেতে পারে।

সানস্ক্রিন : শীতকালেও বাইরে বের হওয়ার প্রায় ৩০ মিনিট আগে এসপিএফ ১৫-৩০ সম্পন্ন সানস্ক্রিন ব্যবহার করা অনেক কার্যকরী। এতে করে ত্বক অনেক মসৃণ থাকে।

হাত ও পায়ের যত্ন : শীতে হাত ও পায়ের আর্দ্রতা বজায় রাখার জন্য প্রয়োজন অনুযায়ী লোশন বা ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। এতে করে হাত ও পায়ের আর্দ্রতা ধরে রাখা সম্ভব।

আর্দ্রতা ধরে রাখা : শীতে ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখার জন্য কিছুক্ষণ পর পর পানির ঝাপটা দিন মুখে। এতে করে সহজে শুষ্ক হবে না ত্বক।

ভেজা ত্বকের যত্ন : গোসলের পর বা মুখ ধোয়ার পর ত্বক ভেজা অবস্থায় লোশন বা ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করলে ত্বকের আর্দ্রতা সহজেই বজায় থাকে।

চুলের যত্ন : শীতে গোসলের পর কখনোই ভেজা চুলে বের হওয়া উচিত নয়। এমন অবস্থায় বাইরে বের হলে চুলের আর্দ্রতা তাড়াতাড়ি নষ্ট হয় এবং সেই সঙ্গে চুল ভেঙে যাওয়ারও সম্ভাবনা থাকে।

ঠোঁটের যত্ন : শীতে জিব দিয়ে ঠোঁট ভেজানো সবারই অভ্যাস। এটা একদমই উচিত নয়। এই সময় ঠোঁট ঠিক রাখার জন্য মধুর সঙ্গে ক’ফোঁটা অলিভ অয়েল মিশিয়ে ঠোঁটে লাগালে আর কখনোই ঠোঁট ফাটবে না।

পোশাক : শীতে শরীরকে গরম রাখার জন্য অনেকে টাইট-ফিট এবং সিনথেটিক বা কৃত্রিম তন্তুর পোশাক ব্যবহার করেন। এসব পোশাক ত্বককে শুষ্ক ও রুক্ষ করে যা অ্যালার্জির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এসব পোশাক ব্যবহার না করে আরামদায়ক এবং প্রাকৃতিক তন্তুর পোশাক ব্যবহার উত্তম। কটন ও সিল্কের তৈরি পোশাক ব্যবহার করা ত্বকের জন্য উপকারী।

গোলাপ জল ও গ্লিসারিন ব্যবহার : ত্বকের সুরক্ষায় গোলাপ জল ও গ্লিসারিনের ভূমিকা অনস্বীকার্য। গ্লিসারিন ব্যবহারে যে কোনো ত্বক দ্রুত মোলায়েম ও প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে। কিন্তু কিছু মানুষ রয়েছেন যারা গ্লিসারিন একদমই পছন্দ করেন না। তারা গ্লিসারিনের সাথে কিছুটা গোলাপ জল মিশিয়ে ত্বকে ব্যবহার করতে পারেন। এতে ত্বক মসৃণ থাকার সঙ্গে সঙ্গে শরীরের বিভিন্ন সমস্যা দূর করে থাকে। এছাড়াও শরীরের কালচে ও খসখসে ভাব দূর হয়।

গরম পানি ব্যবহারে সতর্কতা : শীতকালে শীতের হাত থেকে রক্ষা পেতে গোসলে অনেকেই গরম পানি ব্যবহার করেন। এক্ষেত্রে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। অতিরিক্ত গরম পানি দিয়ে মুখ ও মাথা ধোয়া থেকে বিরত থাকা উচিত। অতিরিক্ত গরম পানি মুখের ত্বকের ফলিকলগুলোর ক্ষতি করে। ফলিকল ত্বককে আর্দ্র রাখতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। তবে গোসলের সময় পানিতে কয়েক ফোঁটা জোজোবা বা বাদাম তেল মিশিয়ে নিলে ত্বক আর্দ্র ও মসৃণ থাকবে।

এসআর/এম

RTV Drama
RTVPLUS