logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

লাইফস্টাইল ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৩:৩১
আপডেট : ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪:৫০

স্বাদে তো বটেই, স্বাস্থ্যেও মাছের রাজা ইলিশ

স্বাদে তো বটেই, স্বাস্থ্যেও মাছের রাজা ইলিশ
মাছের রাজা ইলিশ
স্বাদে অতুলনীয় বলে মাছের জগতের রাজা হিসেবে পরিচিত ইলিশ মাছ। ইলিশ মাছের নাম শুনলে জিভে জল আসে না এমন বাঙালি খুঁজে পাওয়া যাবে না। কিন্তু জানেন কি সুস্বাদু এই মাছের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে? ১০০ গ্রাম ইলিশে প্রায় ২১.৮ গ্রাম প্রোটিনের পাশাপাশি রয়েছে উচ্চ পরিমাণ ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড, নায়সিন, ট্রিপ্টোফ্যান, ভিটামিন, বি ১২, সোডিয়াম, ক্যালসিয়াম ও ম্যাগনেসিয়ামসহ অন্যান্য ভিটামিন ও মিনারেলস।

ইলিশ মাছে আছে আয়োডিন, সেলেনিয়াম, জিঙ্ক, পটাশিয়াম। আয়োডিন থাইরয়েড গ্ল্যান্ড সুস্থ রাখে, সেলেনিয়াম উৎসেচক ক্ষরণে সাহায্য করে যা ক্যানসারের মোকাবিলা করতে পারে। এ ছাড়াও ইলিশে থাকা খনিজ বিশেষ করে ফসফরাস দাঁত এবং ক্যালসিয়াম হাড়ের পুষ্টির জন্য একান্ত অপরিহার্য। সোডিয়াম, পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম ও লৌহ স্বাভাবিক শরীর বৃদ্ধি এবং মানসিক বিকাশের জন্য খুবই প্রয়োজনীয় উপাদান।

ইলিশে প্রচুর পরিমাণ ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে। এতে রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়ায় না। ইলিশে সম্পৃক্ত চর্বিও কম। যার ফলে ইলিশ খেলে হার্ট থাকবে সুস্থ।

রক্তনালীর স্বাস্থ্য রক্ষায় ভালো ইলিশ মাছ। এতে EPA ও DHA নামক ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে। তাই ইলিশ মাছ খেলে শরীরে রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি পায়। ফলে থ্রম্বসিসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমে।

ইলিশ মাছের ওমেগা-৩ ফ্যাট ত্বকের সৌন্দর্য রক্ষায় এবং রোদ থেকে ত্বকের ক্ষতি হওয়া থেকে প্রতিরোধে সাহায্য করে। তাছাড়া ইলিশ মাছে থাকা প্রোটিন কোলাজেনের অন্যতম উপাদান। এই কোলাজেন ত্বক টাইট ও নমনীয় রাখতে সাহায্য করে।

ইলিশ মাছের ভিটামিন-এ এবং ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড সাহায্য করে চোখের সুস্থতা রক্ষায়। ইলিশ মাছ খেলে চোখের স্বাস্থ্য ভালো থাকে এবং চোখ উজ্জ্বল হয়। বয়সকালে দৃষ্টিশক্তি ক্ষীণ হয়ে আসার মোকাবিলা করতে পারে এই ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড।

প্রচুর ভিটামিন এ, ডি এবং ই রয়েছে ইলিশ মাছে৷ ভিটামিন ডি ইলিশে সহজেই মেলে। ইলিশে থাকা ভিটামিন-এ রাতকানা রোগ প্রতিরোধ করে এবং ভিটামিন-ডি শিশুদের রিকেট রোগ থেকে রক্ষা করে। তাছাড়া এতে থাকা ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড অবসাদ, আলসার, কোলাইটিসের হাত থেকেও রক্ষা করে।

তবে একটি বিষয় জানা রাখা উচিত, ইলিশ মাছ খেলে কারও কারও শরীরে অ্যালার্জি বা গ্যাসের উদ্রেক হতে পারে। সেক্ষেত্রে আগে বুঝতে হবে আপনার শরীরে ইলিশ মাছের বিরূপ প্রভাব আছে কিনা, থাকলে ইলিশ এড়িয়ে চলাই ভালো। সূত্র: এই সময়।

এসএস

RTVPLUS