logo
  • ঢাকা সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

লাইফস্টাইল ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ০২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৭:৫০
আপডেট : ০২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২১:০০

করোনায় আক্রান্ত ও প্রাণহানির ঝুঁকিতে মোটা মানুষ, বিশেষজ্ঞদের দাবি

Symbolic image
প্রতীকী ছবি
অতিরিক্ত ওজন আর স্থূলতার কারণে শরীরে একাধিক রোগ-ব্যাধি বাসা বাঁধে এটা কমবেশি সবাই জানি। এবার শোনা যাচ্ছে, করোনায় আক্রান্ত ও প্রাণহানির ঝুঁকিতে আছেন মোটা মানুষ। সম্প্রতি একদল ফরাসি গবেষক দাবি করেন, অতিরিক্ত ওজন আর স্থূলতাই করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বহুগুণ বাড়িয়ে দেয়!

ফ্রান্সের লিলি বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের সংকটজনক করোনা রোগীদের পর্যবেক্ষণের পর ফরাসি গবেষকরা এই দাবি করেন। 

হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে ভর্তি ১২৪ জন করোনা রোগীকে পর্যবেক্ষণ করেছেন তারা। গবেষণা দলের প্রধান অধ্যাপক ফ্রাঙ্কোসিস পাট্টাউ জানান, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৮৭ শতাংশ করোনা রোগীই স্থূলতার শিকার। স্থূলতার কারণে এমনিতে দীর্ঘস্থায়ী কিছু রোগ শরীরে বাসা বাঁধে। এই কারণে তাদের সহজেই থাবা বসাতে পারে করোনাভাইরাস। অতিরিক্ত ওজন আর স্থূলতায় ভুগছেন যারা তাদের রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতাও অনেক কম হয়। ফলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিও বেশি।

গবেষকদের মতে, অধিকাংশ মোটা মানুষে ডায়াবেটিস, কিডনি, হার্ট, উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা আগে থেকেই থাকে। আর এই ধরনের দীর্ঘস্থায়ী ব্যাধির উপস্থিতিতে আরও ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। সমীক্ষা বলছে এখনও পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে অধিকাংশের শরীরে ডায়াবেটিস, কিডনির সমস্যা, হার্ট, ওবিসিটি, উচ্চ রক্তচাপের মতো শারীরিক সমস্যা ছিল।

এর আগে ‘সেন্টার্স ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন’র পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ৩৫ শতাংশ থেকে ৪০ শতাংশ নাগরিক স্থূলতার শিকার। সম্প্রতি এক পরিসংখ্যান অনুযায়ী, আমেরিকায় এ পর্যন্ত যত ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তার মধ্যে প্রায় ৬৪ শতাংশের বিএমআই (BMI) ২৫ থেকে ৪০। এছাড়া যাদের বিএমআই (BMI) ৪০-এরও বেশি মোট আক্রান্তের ৭ শতাংশের অবস্থা সংকটজনক। মার্কিন বা ফরাসি সমীক্ষা অনুযায়ী, করোনা সংক্রমণের ফলে অতিরিক্ত মোটা মানুষদের প্রাণহানির ঝুঁকি বেশি। তাই বিশেষজ্ঞরা বলেছেন শরীরের বাড়তি মেদ ঝরানোর দিকে নজর দিতে হবে।

সূত্র- জিনিউজ।  

আরও পড়ুন: তুলসি পাতা ব্যবহারে যেভাবে ঝরাবেন মেদ 

জিএ

RTVPLUS