logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ০৩ এপ্রিল ২০২০, ২০ চৈত্র ১৪২৬

করোনা আপডেট

  •     করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে শুক্রবার পর্যন্ত বিশ্বে মারা গেছেন ৫৩ হাজার ১৯৫ জন।গত ২৪ ঘণ্টায় স্পেনে মৃত্যু ৯৫০, মোট ১০ হাজার, নতুন আক্রান্ত ৮ হাজারের বেশি: বৃহস্পতিবার জানিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। ভারতে আক্রান্ত ২ হাজার ছুঁই ছুঁই, একদিনে ৯ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ১৩১, মোট মৃত্যু: এনডিটিভি। বিশ্বজুড়ে একদিনে এক লাখের বেশি আক্রান্ত, ৬ হাজার মৃত্যু, এই মৃত্যুর অর্ধেকের বেশিই স্পেন, ইতালি ও যুক্তরাষ্ট্রে: বিবিসি। গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলাদেশে দুজন ব্যক্তি আক্রান্ত হয়েছেন: আইইডিসিআর। যুক্তরাজ্যে ১ দিনে শুধু বুধবার ৫৬২ জনের মৃত্যু হয়েছে, আক্রান্ত ৪৩২৪, মোট মৃতের সংখ্যা ২৩৫২, মোট আক্রান্ত ২৯৪৭৪ জন: এএফপি। গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি মৃত্যু দেখল আমেরিকা- ৮৬৫ জন, মোট মৃত্যু ৩ হাজার ৮৭৩, আক্রান্তের পরিসংখ্যানেও প্রথম স্থানে আমেরিকা- এক লাখ ৭৫ হাজার: ডয়েচে ভেলে। ইউরোপে মৃতের সংখ্যা ৩০ হাজার ছাড়িয়েছে, শুধু স্পেন ও ইতালিতেই মৃত্যু ২০ হাজারের বেশি, ইতালিতে ১২৪২৮, যুক্তরাজ্যে ১৭শ ছাড়িয়েছে: বিবিসি।

ইতালিতে করোনা আতঙ্কে মার্কেটগুলোতে খাদ্য সঙ্কট, মাস্কের দামবৃদ্ধি

আসলামউজ্জামান, ইতালি প্রতিনিধি
|  ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৮:১৪ | আপডেট : ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৭:২৮
Food crisis in Corona panic markets in Italy, mask prices rise

চীন থেকে উৎপত্তি হওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের থাবায় ইতালিতে এই পর্যন্ত সাতজনের  মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। সর্বশেষ লোম্বারদিয়া অঞ্চলের ক্রেমনা প্রভিন্সে এক নারীর মৃত্যু হয়।

ইতালির গণমাধ্যম ‘লা রিপুবলিকা’ বলছে, দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে প্রায় ২৬০ জন আক্রান্ত হয়েছে এবং দুই নারীসহ সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে লোম্বারদিয়া অঞ্চলে ১১২ জন আক্রান্ত হয়েছে, আর মৃত্যু হয়েছে দুইজনের। ভেনেতো অঞ্চলে ২৫ জন আক্রান্ত, তাদের মধ্যে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। আর পিওমন্তে অঞ্চলে ৬ জন আক্রান্ত, লাছিও অঞ্চলে দুইজনসহ মোট সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া এমিলা রোমানিয়া অঞ্চলে নয়জন আক্রান্ত হয়েছে।

করোনাভাইরাস আতঙ্কে সোমবার থেকে লোম্বারদিয়া, ভেনেতো, পিওমন্তে ও ভেনেসিয়া- এই চার অঞ্চলসহ ইতালির ট্যুরিস্ট শহরের সব স্কুল-কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, গির্জা, সিনেমা বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া ফুটবল লীগ, নাইট ক্লাব ও জাদুঘর  বন্ধ থাকবে।

এদিকে করোনাভাইরাসের কারণে অস্ট্রিয়া সরকার ইতালির সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে। এছাড়া বাতিল করা হয়েছে ইতালির ভেনিস কার্নিভাল উৎসব। তবে সবশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ভেনিসে কোনও করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী পাওয়া যায়নি। কিন্তু কর্মজীবী মানুষরা বিপাকে পড়েছে, তাদের জীবিকার তাগিদে ঘর থেকে বের হতে হচ্ছে।

অন্যদিকে করোনার আতঙ্কে খাবারের সংকট দেখা দিয়েছে সুপার মার্কেটগুলোতে। মাস্কের দাম বেড়েছে কয়েক গুণ। তবে ইতালির সরকার আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছে। সবাইকে সাবধানে চলাচল করতে বলেছে তারা। এছাড়া আক্রান্ত এলাকায় বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া বের হতে নিষেধ করা হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে ইতালিতে বসবাসরত প্রায় তিন লাখের বেশি বাংলাদেশির মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ : করোনাভাইরাস

আরও
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৫৬ ২৬
বিশ্ব ১০১১৪৯০ ২১০১৮৬ ৫২৮৬৩
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ
  • আন্তর্জাতিক এর পাঠক প্রিয়