logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২০, ৫ মাঘ ১৪২৭

ইরানকে ক্ষমা চাইতে বললো কানাডা-ইউক্রেন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১২ জানুয়ারি ২০২০, ১২:০৮ | আপডেট : ১২ জানুয়ারি ২০২০, ১২:১৩
জাস্টিন ট্রুডো, ভলোদিমির জেলেনস্কি
ছবি সংগৃহীত
ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র ‘ভুলবশত’ ইউক্রেনীয় বিমানে আঘাত হানলে সেটি বিধ্বস্ত হয়, তেহরান এমন বিবৃতি দেয়ার পর ক্ষমা চাইতে বলেছে ইউক্রেন ও কানাডা। গত বুধবার তেহরানের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ১৭৬ আরোহী নিয়ে উড্ডয়নের কিছুক্ষণ পর বিধ্বস্ত হয় ইউক্রেনের যাত্রীবাহী একটি বিমান।

প্রথমে বিমানটি বিধ্বস্ত হওয়ার সঙ্গে নিজেদের সংশ্লিষ্টতা অস্বীকার করলেও গতকাল শনিবার এক বিবৃতিতে এর দায় স্বীকার করে ইরান। এরপরই এমন কড়া প্রতিক্রিয়া দেখালো ইউক্রেন ও কানাডা।

বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোও। তিনি বলেন, এটা জাতীয় বিপর্যয়। কানাডার সব নাগরিক এই ঘটনায় প্রচণ্ড আঘাত পেয়েছে। শোকে কাতর হয়ে পড়েছে। নিহত ৬৩ জন নাগরিকের পরিবারকে এর জন্য ক্ষতিপূরণ দিতে হবে ইরানকে। প্রকাশ্যে ক্ষমা চেয়ে বিবৃতি দিতে হবে।

এদিকে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি এক বিবৃতিতে বলেন, সকালটা সত্যি ভালো ছিল না। আন্তর্জাতিক কমিশন তদন্ত শেষ করার আগেই ইরান ইউক্রেনীয় উড়োজাহাজ ভূপাতিত করার বিষয়ে তাদের অপরাধ স্বীকার করে নিলো।

ইরানকে স্পষ্টভাবে দোষ স্বীকার করে নেয়ার আহ্বান জানিয়ে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট বলেন, আমরা আশা করি, ইরান একটি পরিপূর্ণ ও উন্মুক্ত তদন্ত করবে, দায়ীদের বিচারের আওতায় আনবে, নিহতদের মরদেহ ফিরিয়ে দেবে, ক্ষতিপূরণ প্রদান করবে এবং কূটনৈতিক নিয়মকানুন মেনে রাষ্ট্রীয়ভাবে ক্ষমা চাইবে।

উল্লেখ্য, বিমানের ১৭৬ আরোহীর মধ্যে ৮২ ইরানি, ১১ ইউক্রেনীয়, ১০ সুইস, ৪ আফগান, ৬৩ কানাডীয়, ৩ ব্রিটিশ এবং ৩ জন জার্মান নাগরিক ছিলেন।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ
  • আন্তর্জাতিক এর পাঠক প্রিয়