logo
  • ঢাকা শনিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬

ইরানের সঙ্গে নতুন চুক্তি করতে চান ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৮ জানুয়ারি ২০২০, ২২:৩১ | আপডেট : ০৯ জানুয়ারি ২০২০, ১০:৪০
আয়াতুল্লাহ আলী খামেনেয়ি, ডোনাল্ড ট্রাম্প
যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যম সিএনএন
যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জয়েন্ট কম্প্রেহেনসিভ প্ল্যান অব অ্যাকশনকে (জেসিপিওএ) ‘খুবই ত্রুটিপূর্ণ’ বলে উল্লেখ করে অন্যান্য দেশকে এই চুক্তি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। সবাইকে নিয়ে ইরানের সঙ্গে নতুন চুক্তি করার কথা জানিয়েছেন তিনি।

তিনি স্থানীয় সময় বুধবার হোয়াইট হাউসে ইরাকে অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের দুটি ঘাঁটিতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা সম্পর্কে জাতির উদ্দেশে দেয়া এক ভাষণে এসব কথা জানান। খবর যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম সিএনএনের।

ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, জেসিপিওএ-এর মেয়াদ দ্রুতই শেষ হবে। এটি ইরানকে পারমাণবিক অস্ত্রধারী হওয়ার একটি স্পষ্ট ও দ্রুতগতির সুযোগ দিয়েছে। ইরানকে অবশ্যই পারমাণবিক অস্ত্রধারী হওয়ার আকাঙ্ক্ষা ত্যাগ এবং সন্ত্রাসে মদদ দেয়া বন্ধ করতে হবে।

তিনি বলেন, আমি যতদিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট থাকব, ততদিন ইরানের কাছে কোনও পারমাণবিক অস্ত্রও থাকতে দেব না। আমরা সবাইকে নিয়ে ইরানের সঙ্গে একটি চুক্তি করতে চাই। এই চুক্তি পৃথিবীকে আরও নিরাপদ ও শান্তিপূর্ণ করবে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নতুন চুক্তির বিষয়টি জানালেও মার্কিন ঘাঁটিতে হামলার শাস্তি হিসেবে ইরানের ওপর আরও একাধিক অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা জানান। তিনি বলেন, ইরানের ব্যবহারে পরিবর্তন না আসা পর্যন্ত এসব নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে।

তিনি প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র জ্বালানিতে স্বনির্ভর হয়েছে দাবি করে বলেন, আমরা এখন বিশ্বের ১ নম্বর তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাস উৎপাদনকারী দেশ। আমরা এখন স্বনির্ভর এবং মধ্যপ্রাচ্যের তেলের কোনও প্রয়োজন নেই আমাদের।

গত ৩ জানুয়ারি ভোররাতে ইরাকের বাগদাদ ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের বিমান হামলায় ইরানের ইসলামিক রেভল্যুশনারি গার্ড কর্পসের (আইআরজিসি) কুদস ফোর্সের প্রধান মেজর জেনারেল কাসেম সোলাইমানি নিহত হন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা বিভাগের সদর দপ্তর পেন্টাগন জানায়, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশে এই হামলা চালানো হয়। অন্যদিকে ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনেয়ি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের জন্য কঠোর প্রতিশোধ অপেক্ষা করছে।

এর জবাবে বুধবার দুটি আমেরিকান ঘাঁটিতে ইরানের ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে ৮০ জন নিহত এবং ২০০ জন আহত হন বলে জানায় ইরানি রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন। তবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বুধবার বলেন, ইরানের হামলায় কোনও আমেরিকান আহত বা নিহত হননি।

কে/এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ
  • আন্তর্জাতিক এর পাঠক প্রিয়