logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ২২ জানুয়ারি ২০২১, ৮ মাঘ ১৪২৭

২৫০ মাইল গতির বৈদ্যুতিক গাড়ি আনলো জাপানি প্রতিষ্ঠান!

250mph electric hypercar has 'fastest acceleration in the world'
ছবি সংগৃহীত
চলতি সপ্তাহে দুবাই মোটর শোতে ‘বিশ্বের দ্রুততম অ্যাকসেলেরেটিং গাড়ি’ উন্মোচন করা হয়েছে। জাপানি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এস্পার্কের পুরোপুরি বৈদ্যুতিক এই গাড়ি এস্পার্ক আউল মাত্র ১.৬৯ সেকেন্ডে ঘণ্টায় ৬০ মাইল গতিতে পৌঁছাতে সক্ষম।

বাজারে এস্পার্কের দুই প্রতিদ্বন্দ্বী রিম্যাকের কনসেপ্ট টু ও টেসলার রোডস্টার একই গতিতে পৌঁছাতে যথাক্রমে ১.৮৫ সেকেন্ড ও ১.৯ সেকেন্ড সময় নেয়।

২০১৭ সালে প্রথমে প্রোটোটাইপ হিসেবে প্রদর্শনী করা হয় এস্পার্ক আউলের। তবে দুবাইয়ের সম্মানজনক গাড়ি শোতে এটির চূড়ান্ত ভার্সনের ‘ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার’ হলো।

অ্যাকসেলেরেটিংয়ে রেকর্ড ভাঙার পাশাপাশি এস্পার্কের দাবি, এটাই জাপানে তৈরি সম্পূর্ণ বৈদ্যুতিক সুপারকার।

লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি চালিত আউল ২,০১২ ব্রেক হর্সপাওয়ার (বিএইচপি)-র, যেটি পুরোপুরি চার্জ হতে ৮০ মিনিট লাগে। এই গাড়িটির গতি ঘণ্টায় ২৫০ মাইলের কিছুটা কম, ফলে বিশ্বে রাস্তায় বৈধভাবে চলাচলকারী দ্রুততম গাড়িগুলোর একটি এটি।

এস্পার্কের প্রেসিডেন্ট মাসানোরি ইয়োসিদা টপ গিয়ার ম্যাগাজিনকে বলেন, তার কোম্পানি ২০২০ সালের মার্চের মধ্যে জার্মানির নুরবার্গিং রেসট্র্যাকে বিশ্ব রেকর্ড গড়ার চেষ্টা করবে।

এস্পার্ক বলছে, তারা হাই-পারফরম্যান্স স্পেসিফিকস বজায় রেখে একটি ‘মেয়েলি’ নান্দনিকতাপূর্ণ গাড়ি তৈরি করতে চেয়েছিল। এই গাড়িটির স্টেইনলেস স্টিল ফ্রেমের চারপাশে কার্বন ফাইবার প্যানেলের সমন্বয়ে গঠিত।

আউলের উচ্চতা মাত্র ৯৯ সেন্টিমিটার, যা রাস্তায় চলাচলকারী গাড়িগুলোর মধ্যে সবচেয়ে নিচু। এছাড়া এটির ওজন মাত্র ১২০ কেজি, ফলে এটি সবচেয়ে হালকা গাড়িও।

এখন পর্যন্ত মাত্র ৫০টি গাড়ি উৎপাদন করেছে এস্পার্ক। আর প্রতিটি গাড়ির মূল্য ধরা হয়েছে ৩১ লাখ ৯০ হাজার ডলার (২৯ লাখ ইউরো)।

এ/ এমকে

RTV Drama
RTVPLUS